default-image

চতুর্থ শিল্পবিপ্লব আমাদের সবাইকে একটি বড় চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি করেছে। বিশেষ করে ভবিষ্যৎ কর্মক্ষেত্রে টিকে থাকা, আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স ও অটোমেশনের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে এগিয়ে যাওয়া, নতুন তথ্যপ্রযুক্তির সঙ্গে খাপ খাইয়ে নেওয়া, প্রয়োজনীয় স্কিল ডেভেলপ করা এর সবই আমাদের জন্য একটি চ্যালেঞ্জ।

স্কিলএইড বাংলাদেশকে সঙ্গে নিয়ে ইএমকে সেন্টার গতকাল শনিবার (১৪ নভেম্বর) আয়োজন করে ‘Transforming Marketing For The 4IR’ শিরোনামের একটি অনলাইন সেশনের। ৪০০ জনের বেশি অংশগ্রহণকারী সেশনটিতে অংশ নেন।

সেশনটিতে বক্তা হিসেবে ছিলেন এসিআই কনজিউমার ব্র্যান্ডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ আলমগীর, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মার্কেটিং বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. রাফিউদ্দীন আহমেদ এবং ইউল্যাবের সহকারী অধ্যাপক ও ইএমকে সেন্টারের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক আসিফ উদ্দিন আহমেদ।

বিজ্ঞাপন

বক্তারা চতুর্থ শিল্পবিপ্লব মোকাবিলায় মার্কেটিংয়ের ব্যবহার, ডিজিটাল মার্কেটিং, ভোক্তাদের আচরণ বিশ্লেষণ, ডেটা বিশ্লেষণ, পর্যবেক্ষণ, আধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহার, নতুন পণ্যের মার্কেটিংসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ বিষয় আলোচনা করেন। তা ছাড়া উদ্যোক্তাদের করোনাকালীন মার্কেটিং কৌশল নিয়েও বক্তারা আলোচনা করেন।

সৈয়দ আলমগীর চতুর্থ শিল্পবিপ্লব মোকাবিলায় প্রতিষ্ঠান ও কর্মীদের করণীয়, নতুন ও চলমান পণ্যের মার্কেটিং কৌশল, উদ্যোক্তাদের জন্য বিশেষ মার্কেটিং কৌশল ও মার্কেটিং ক্ষেত্রে নতুনদের ভালো করার বিভিন্ন পরামর্শ দেন।

রাফিউদ্দীন আহমেদ ডিজিটাল মার্কেটিংয়ের ব্যবহার, মার্কেটিংয়ের আধুনিক টুলস, ডেটা বিশ্লেষণ ও শিক্ষার্থীদের জন্য প্রয়োজনীয় মার্কেটিং স্কিলের কথা উপস্থাপন করেন।

ইএমকে সেন্টারের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক আসিফ উদ্দিন আহমেদ মার্কেটিং নিয়ে যাঁরা কাজ করেন তাঁদের বিশ্বব্যাপী সম্ভাবনা, ই-কমার্স, এফ-কমার্স, তরুণ উদ্যোক্তাদের করণীয়, গ্রাহকদের তথ্য বিশ্লেষণ, চতুর্থ শিল্পবিপ্লবে কর্মসংস্থান পরিস্থিতি ইত্যাদি নিয়ে আলোকপাত করেন।

আয়োজনটি সমন্বয় করেন ইএমকে সেন্টারের উদ্যোক্তা সমন্বয়কারী শারমিন আক্তার শাকিলা ও সেশনটি পরিচালনা করেন স্কিলএইড বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠাতা মো. মাসুদ।

মন্তব্য পড়ুন 0