মৌখিক পরীক্ষার অভিজ্ঞতা

শ্রাবণী গুহ রায়, সহকারী শিক্ষক
রাজার দৈউরি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, কোতোয়ালি, ঢাকা।

অনুমতি দিয়ে ভাইভা বোর্ডের কক্ষে প্রবেশ করার পর আমাকে বসতে বলেন একজন পরীক্ষক। তারপর কুশল বিনিময় করে প্রশ্ন করা শুরু করেন।

পরীক্ষক: বসুন, আপনার নাম কী?
প্রার্থী: শ্রাবণী গুহ রায়

পরীক্ষক: আপনার বাসা কোথায়?
প্রার্থী: বললাম

পরীক্ষক: সংবিধানের কত নম্বর অনুচ্ছেদ অবৈতনিক ও বাধ্যতামূলক শিক্ষার কথা বলা হয়েছে?
প্রার্থী: ১৭ নম্বর অনুচ্ছেদে।

default-image

পরীক্ষক: প্রাইমারি টিচার্স ট্রেনিং ইনস্টিটিউটের সংখ্যা কত?
প্রার্থী: ৬৮টি। এর মধ্যে সরকারি ৬৭টি আর বেসরকারি ১টি।

পরীক্ষক: সবশেষ পিটিআই কোনটি?
প্রার্থী: ঢাকা পিটিআই।

পরীক্ষক: DPE–এর পূর্ণরূপ বলেন?
প্রার্থী: Directorate of Primary Education.

পরীক্ষক: প্রাথমিক শিক্ষার উদ্দেশ্য কয়টি?
প্রার্থী: ১৩টি।

পরীক্ষক: ২৩ জুন কিসের জন্য বিখ্যাত?
প্রার্থী: ২৩ জুন ১৯৪৯ সালে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ প্রতিষ্ঠিত হয়। এই দিনে ১৭৫৭ সালে পলাশীর যুদ্ধ সংগঠিত হয়।

পরীক্ষক: নারী ও কন্যাশিশুদের শিক্ষা প্রসারে অবদানের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে কোন সংস্থা ‘শান্তিবৃক্ষ’ পুরস্কার প্রদান করে?
প্রার্থী: ইউনেসকো।

পরীক্ষক: প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়কে ইউনেসকো কোন পুরস্কারে ভূষিত করে এবং কত সালে?
প্রার্থী: স্বাক্ষরতা পুরস্কার, ১৯৯৮ সালে।

পরীক্ষক: আপনি কী জাতীয় সংগীত গেয়ে শোনাতে পারবেন?
প্রার্থী: জ্বি স্যার। গেয়ে শোনালাম।

পরীক্ষক: অসাধারণ। আপনি কী সংগীত শিখেছেন?
প্রার্থী: জ্বি স্যার, বুলবুল ললিতকলা একাডেমি থেকে।

পরীক্ষক: ঠিক আছে, আপনি এবার আসতে পারেন।
প্রার্থী: ধন্যবাদ স্যার।

পরামর্শ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন