default-image

দেশের বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ৫৪ হাজার ৩০৪ জন শিক্ষক নিয়োগের তৃতীয় গণবিজ্ঞপ্তির শূন্য পদের বিষয় ও পদভিত্তিক আবেদন চলছে। বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ) জানিয়েছে, ৫৪ হাজার ৩০৪টি শূন্য পদের মধ্যে স্কুল ও কলেজ পর্যায়ে ৩১ হাজার ১০১টি শূন্য পদ রয়েছে। এর মধ্যে এমপিওভুক্ত পদ ২৬ হাজার ৮৩৮টি। মাদ্রাসা ও কারিগরি প্রতিষ্ঠানে মোট শূন্য পদ ২০ হাজার ৯৯৬টি। এর মধ্যে ১৯ হাজার ১৫৪টি এমপিওভুক্ত। মোট ৫৪ হাজার ৩০৪টি পদের মধ্যে ২ হাজার ২০৭টি এমপিও পদে রিট মামলায় অংশগ্রহণ করা প্রার্থী আবেদনের সুযোগ পাবেন। তবে যেসব প্রার্থী তথ্য যোগাযোগপ্রযুক্তি বিষয়ের সহকারী শিক্ষক পদে আবেদন করেছেন, তাঁদের শিক্ষক নিবন্ধন ও কম্পিউটারবিষয়ক সনদের স্ক্যান কপি পাঠাতে বলেছে এনটিআরসিএ। আগামী ৬ মের মধ্যে ই–মেইলে আইসিটি শিক্ষক পদে আবেদনকারী প্রার্থীদের তথ্য ও সনদের স্ক্যান কপি পাঠাতে বলা হয়েছে। এনটিআরসিএ বলছে, সনদের স্ক্যান কপি ও তথ্য ৬ মের মধ্যে না পাঠালে প্রার্থীদের সুপারিশের প্রক্রিয়া শুরু সম্ভব হবে না।

গতকাল সোমবার এনটিআরসিএ থেকে এ–সংক্রান্ত আদেশ জারি করা হয়েছে।

এনটিআরসিএর আদেশে বলা হয়েছে, তৃতীয় গণবিজ্ঞপ্তিতে যেসব প্রার্থী সহকারী শিক্ষক (তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি) পদে আবেদন করেছেন বা করবেন, তাঁদের নিবন্ধন পরীক্ষার উত্তীর্ণ সনদ এবং পরীক্ষায় আবেদনের সময় দাখিল করা কম্পিউটার বা আইসিটিবিষয়ক সনদের স্ক্যান কপি আবশ্যিকভাবে আগামী ৬ মের মধ্যে ই–মেইলে পাঠাতে অনুরোধ করা হলো। এ ছাড়া নির্ধারিত ছকে প্রার্থীদের তথ্য অন্তর্ভুক্ত করেও পাঠাতে বলা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
default-image

শিক্ষক নিবন্ধন সনদ ও কম্পিউটার বা আইসিটিবিষয়ক সনদের সঙ্গে ছকে প্রার্থীর রোল নম্বর, নাম, নিবন্ধন পরীক্ষায় পাসের বছর ও কম্পিউটার বা আইসিটিবিষয়ক ডিগ্রির নাম ও প্রতিষ্ঠানের নাম উল্লেখ করে ই–মেইল পাঠাতে হবে প্রার্থীদের। [email protected] বা [email protected] ই–মেইল ঠিকানার যেকোনো একটিতে সনদের স্ক্যান কপি ও তথ্য ছক ৬ মের মধ্যে পাঠাতে হবে প্রার্থীদের।
এনটিআরসিএ আরও বলছে, নির্ধারিত তারিখের মধ্যে সনদের স্ক্যান কপি বা ছকের তথ্য পাঠাতে ব্যর্থ হলে প্রার্থীদের সুপারিশ প্রসেস করা সম্ভব হবে না।

*এনটিআরসিএর বিজ্ঞপ্তি দেখুন এখানে

নিয়োগ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন