default-image

স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়—সব পর্যায়ের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছাত্রছাত্রীরাই এক ঘোর অনিশ্চয়তার মধ্য দিয়ে সময় পার করছে। যারা এ বছর এসএসসি পেরোল, তাদের সংকট আরও প্রকট। স্কুল থেকে বিদায় নেওয়া হয়ে গেছে, পরীক্ষার ফলও বেরিয়ে গেছে। এদিকে কলেজে ভর্তি কবে শুরু হবে, জানা নেই।

এসএসসি পেরোনো প্রিয় শিক্ষার্থীরা, আপাতত কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের অধীনে না থাকলেও, তুমি কিন্তু ঘরে বসেই বিশ্বখ্যাত বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের অনলাইন কোর্সে অংশ নিতে পারো বিনা মূল্যে। গুগলে একটু ঘাঁটাঘাঁটি করলেই হাজারো কোর্সের খোঁজ পাবে। কোর্সেরা (coursera.org), এডেক্স (edx.org)–এর মতো অনলাইন শিক্ষার ওয়েবসাইটগুলোতে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বল্পমেয়াদি কোর্স রয়েছে। বেশির ভাগই হয়তো বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের বিষয়ভিত্তিক কোর্স। কিন্তু এমন কিছু কোর্সও আছে, যেগুলো মূলত ব্যক্তিগত উন্নয়নের। তোমাদের সুবিধার জন্য হাজার কোর্স থেকে বাছাই করা পাঁচটি কোর্স সম্পর্কে এখানে সংক্ষেপে বলা হলো। চাইলে এখনই শুরু করে দিতে পারো। একটু না হয় কঠিন লাগল, সব না হয় না-ই বুঝলে, তবু বিশ্বখ্যাত বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকেরা কীভাবে পড়ান, অনলাইনে ক্লাস কীভাবে করতে হয়, সে সম্পর্কে একটা ধারণা হবে।

১. লেখা ও কথার জাদু

অনলাইনে কোর্সের ঠিকানা: bit.ly/31qGTX4

যুক্তরাষ্ট্রের হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের ৯০টি কোর্স তুমি অনলাইনে বিনা মূল্যে করতে পারবে (দেখতে পারো এই ওয়েবসাইট: online-learning.harvard.edu/catalog/FREE)। প্রোগ্রামিং, ইতিহাস, ব্যবসা, স্বাস্থ্যসহ বহু বিষয় আছে। আমরা যে কোর্সটি নিয়ে কথা বলছি, তার নাম ‘রেটোরিক: দ্য আর্ট অব পারসুয়েসিভ রাইটিং অ্যান্ড পাবলিক স্পিকিং’। এই কোর্সে তুমি শিখবে, কীভাবে নিজের মতামত যথাযথভাবে লেখায় বা বক্তৃতায় তুলে ধরতে হয়, কীভাবে যুক্তি উপস্থাপন করতে হয়। বিভিন্ন বিখ্যাত বক্তৃতা ও লেখার চুলচেরা বিশ্লেষণের মাধ্যমে এই কোর্সে মূলত ক্রিটিক্যাল থিঙ্কিং বা তুরীয় চিন্তা শেখানো হয়েছে। কোর্সটি সাজিয়েছেন হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি ও তুলনামূলক সাহিত্যের অধ্যাপক জেমস এঙ্গেল। শেখার সুযোগ আছে বিনা মূল্যে। তবে তুমি যদি একটি প্রাতিষ্ঠানিক সনদ চাও, তাহলে দিতে হবে ৯৯ ডলার বা প্রায় সাড়ে আট হাজার টাকা। 

২. গণিত কীভাবে শেখে

কোর্সের লিংক: stanford.io/2BHqxyN

তুমি কি জানো, তুমি যখন ঠিকঠাকভাবে কোনো একটা অঙ্কের উত্তর মিলিয়ে ফেলো, তাতে তোমার মস্তিষ্কের তেমন কোনো উন্নতি হয় না। বরং তোমার মস্তিষ্কটা আরও কার্যকর, আরও সতেজ হয় তখন, যখন কোনো একটা গাণিতিক সমস্যার উত্তর ভুল হয়, আর তুমি সমাধান খুঁজে খুঁজে হয়রান হও। এমন আরও অনেক মজার বিষয় জানতে পারবে স্ট্যানফোর্ড ইউনিভার্সিটির ‘হাউ টু লার্ন ম্যাথ: ফর স্টুডেন্টস’ কোর্স থেকে। এই কোর্সে মূলত আমাদের জীবনে সংখ্যার প্রভাব, গণিতের সঙ্গে মস্তিষ্কের সম্পর্ক, এমন নানা বিষয় তুলে ধরা হয়েছে। স্ট্যানফোর্ডের গণিত শিক্ষার অধ্যাপক জো বোলার যেভাবে প্রতিটা বিষয় ভেঙে, বুঝিয়ে বলেন, খুব একটা সমস্যা হওয়ার কথা নয়। যাদের অঙ্কভীতি আছে, তারা এই কোর্সটি করতে পারো।

৩. ভার্চ্যুয়াল যুগের যোগাযোগ

কোর্সের লিংক: bit.ly/31lqWSa

কানাডার ইউনিভার্সিটি অব টরন্টোর ‘কমিউনিকেশন স্ট্র্যাটেজিস ফর আ ভার্চ্যুয়াল এইজ’ কোর্সটা ঠিক সচরাচর ক্লাসের মতো নয়। বরং ইভান ওয়ানিস রুইজের ভিডিওগুলো দেখলে তোমার মনে হতে পারে, তুমি মজার কোনো অনুষ্ঠান দেখছ। ইভান সেই অনুষ্ঠানের উপস্থাপক। কোর্সের তত্ত্বগুলো থেকে তো বটেই, তাঁর উপস্থাপনের ধরন দেখেও তুমি শিখতে পারবে, আজকের এই ভার্চ্যুয়াল যুগে যোগাযোগ কীভাবে করতে হয়। একটু মনোযোগ দিয়ে কোর্সের সব কটি ভিডিও দেখলে, নোটগুলো পড়লে আর কুইজে অংশ নিলে নিশ্চয়ই তোমার যোগাযোগ দক্ষতার বেশ উন্নতি হবে। অনলাইন শিক্ষার প্ল্যাটফর্ম কোর্সেরায় বেশ সুন্দরভাবে পুরো পাঠক্রমটি সাজানো আছে। বর্তমান সময়ের বিবেচনায় এটি নিশ্চয়ই অত্যন্ত যুগোপযোগী একটি কোর্স।

৪. বিশ্বের দারিদ্র্যের চ্যালেঞ্জ

কোর্সের লিংক: bit.ly/2Yy5g3w

যুক্তরাষ্ট্রের বিখ্যাত ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজির (এমআইট) এমআইটি ওপেন কোর্সওয়্যার (ocw.mit.edu) ওয়েবসাইটটি রীতিমতো সোনার খনি। পরিবেশ থেকে শুরু করে পরিবহন, রোবটিকস থেকে ইলেকট্রনিকস, এমন অসংখ্য কোর্স আছে। তবে আমরা কেন ‘দ্য চ্যালেঞ্জ অব ওয়ার্ল্ড পোভার্টি’ নামক কোর্সটি নিয়ে কথা বলছি, তার পেছনে একটা বিশেষ কারণে আছে। এই কোর্সের শিক্ষক ভারতীয় বাঙালি অর্থনীতিবিদ অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায় এবং তাঁর স্ত্রী এস্তার দুফলো। দুজনই গত বছর অর্থনীতিতে নোবেল পেয়েছেন। ভিডিওসহ মোট ২৬টি লেকচার আছে। কীভাবে শিশুশ্রমের অবসান হতে পারে, কেন কিছু দেশ অর্থনৈতিকভাবে এগিয়ে যায়, আর কিছু দেশ পিছিয়ে থাকে...এমন নানা বিষয়ে কথা বলেছেন দুই নোবেলজয়ী।

যেহেতু বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের জন্য এই কোর্স, অনেক কিছুই তোমার কাছে দুর্বোধ্য মনে হবে। অ্যাসাইনমেন্ট, পরীক্ষাগুলোও বেশ কঠিন। কিন্তু ভিডিও দেখে, প্রশ্নগুলোতে চোখ বুলিয়ে তুমি ‘এমআইটির শিক্ষার্থী’ হওয়ার স্বাদ নিতে পারো। বিশাল বোর্ডের সামনে দাঁড়িয়ে অভিজিৎ কীভাবে ক্লাস নেন, কীভাবে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে রসিকতা করেন, সেসব দেখারও একটা মজা আছে! এমআইটির এই কোর্সগুলোর জন্য কোনো সনদের ব্যবস্থা নেই।

৫. ভালো থাকার বিজ্ঞান

কোর্সের লিংক: bit.ly/2VnORfQ

বর্তমান সময়ে ইয়েল ইউনিভার্সিটির এই কোর্সটি নিশ্চয় সবারই কাজে আসার মতো। দ্য সায়েন্স অব ওয়েল বিয়িং নামের কোর্সে ‘সুখ’ সম্পর্কে আমাদের ভুল ধারণাগুলো তুলে ধরা হয়েছে। কোভিড-১৯–এর এই মহামারির মধ্যে কীভাবে মনটাকে সুস্থ রাখা যায়, সে সম্পর্কেও কিছু পরামর্শ পাবে। গল্প করার ভঙ্গিতে মজা করে কথা বলেন কোর্সের শিক্ষক, ইয়েল ইউনিভার্সিটির মনোবিজ্ঞানের অধ্যাপক লরি স্যানটোস। ভিডিওর সঙ্গে যেহেতু লিখিত রূপও আছে, বুঝতে সমস্যা হওয়ার কথা নয়। কোর্সেরার অ্যাপটি ডাউনলোড করে নিলে তুমি মুঠোফোনেও নিজের সুবিধামতো সময়ে একটু একটু করে পুরো কোর্সটি সম্পন্ন করতে পারবে। কোর্স শেষে পাওয়া যাবে একটি ডিজিটাল সনদ, যা তুমি পেশাগত যোগাযোগমাধ্যম লিংকড–ইনে ভাগ করতে পারবে, চাইলে প্রিন্টও করে নিতে পারো।

বিজ্ঞাপন
শিক্ষা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন