বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ কিন্ডাগার্টেন স্কুল-কলেজ অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি সিরাজুল ইসলাম বলেন, ‘শিক্ষকেরা জাতির বিবেক। এসব প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকেরা প্রায় দুই কোটি শিশুকে একাডেমিক শিক্ষা ও এক কোটি শিশুকে সাংস্কৃতিক শিক্ষাসেবা দান করে আসছেন। মহামারি করোনার প্রভাবে এই সেক্টরের সঙ্গে জড়িত সব শিক্ষক, কর্মচারী ও পরিচালক আজ অসহায় ও মানবেতর জীবন যাপন করছেন। আমরা কোথাও ত্রাণের জন্য হাত পাততে পারছি না। আবার আমাদের এসব প্রতিষ্ঠানে ব্যাংকগুলোও ঋণ প্রদান করে না। এমতাবস্থায় ভরসার সর্বশেষ কেন্দ্রস্থল প্রধানমন্ত্রী যদি আমাদের প্রতি সুনজর না দেন, তাহলে আমরা সর্বস্বান্ত ও নিঃস্ব হয়ে না খেয়ে ধুকে ধুকে মরে যাব।’
শিক্ষকনেতা মান্নান মনিরের সঞ্চালনায় বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক, পরিচালক, সংগঠক ও সংস্কৃতিকর্মী মানববন্ধনে বক্তব্য দেন। পরে সংগীত পরিবেশনের মাধ্যমে বর্তমানে শিক্ষকদের পরিস্থিতি তুলে ধরা হয়।

শিক্ষা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন