হল কর্তৃপক্ষ বলছে, নবনির্মিত ছাত্রী হলটিতে ওঠার সময় ছাত্রীদের শর্ত দেওয়া হয়েছিল, হলে কোনো ধরনের ব্যক্তিগত রান্নার বৈদ্যুতিক পণ্য ব্যবহার করা যাবে না। এ বিষয়ে একাধিক নোটিশ দেওয়া হয়। পরে অভিযোগ পেয়ে বিভিন্ন তলায় ছাত্রীদের কক্ষে অভিযান চালানো হয়। উদ্ধার করা পণ্যগুলো কর্তৃপক্ষ নিজেদের জিম্মায় নিয়েছে।

ছাত্রী হলের প্রভোস্ট শামীমা বেগম বলেন, অবৈধভাবে এসব বৈদ্যুতিক পণ্য ব্যবহার করায় প্রায় প্রতিদিনই বিভিন্ন তলায় বিদ্যুৎ–সমস্যা হচ্ছিল। দুর্ঘটনা এড়াতে ছাত্রীদের নিরাপত্তার স্বার্থে এসব পণ্য ব্যবহার না করতে নোটিশ দেওয়া হয়। তবু অনেকে সাবধান না হওয়ায় অভিযান চালানো হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্যের সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে কথা হয়েছে। তিনিও ছাত্রীদের এসব বৈদ্যুতিক পণ্য ব্যবহার না করার পক্ষে মত দিয়েছেন।

শিক্ষা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন