default-image

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে (ঢাবি) প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষায় আবেদনের যোগ্যতা এবার বাড়ানো হয়েছে। ভর্তি-ইচ্ছুক শিক্ষার্থীদের একটি অংশ আবেদনের বর্ধিত শর্ত বাতিল করে আগের শর্ত বহাল রাখার দাবি জানিয়েছে।

আজ শনিবার দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলন থেকে এ দাবি জানান ভর্তি-ইচ্ছুক শিক্ষার্থীরা। তাঁরা গুচ্ছ পদ্ধতির ভর্তি পরীক্ষায় প্রাথমিক বাছাই পদ্ধতি বাতিলের দাবিও জানিয়েছেন। দুটি দাবি আদায়ে আগামীকাল রোববার দুপুর ১২টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে মানববন্ধন কর্মসূচি ঘোষণা করেছেন এই ভর্তি-ইচ্ছুক শিক্ষার্থীরা।

বিজ্ঞাপন

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক (সম্মান) প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে আগামী মে মাসে। আগামী ২১ মে থেকে ৫ জুন পর্যন্ত পাঁচটি ইউনিটের অধীনে এই পরীক্ষা নেওয়া হবে। ভর্তির অনলাইন আবেদনপ্রক্রিয়া ৮ মার্চ শুরু হয়ে চলবে ৩১ মার্চ পর্যন্ত। ক ইউনিটে আবেদন করতে হলে এসএসসি ও এইচএসসিতে আলাদাভাবে ন্যূনতম জিপিএ ৩.৫সহ মোট ৮.৫, খ ইউনিটে আলাদাভাবে ৩সহ মোট ৮, গ ইউনিটে আলাদাভাবে ৩.৫সহ মোট ৮ থাকতে হবে। বিভাগ পরিবর্তনের ঘ ইউনিটে নিজ নিজ ইউনিটে যোগ্যতা পূরণ সাপেক্ষে আবেদন করা যাবে। এ ছাড়া চ ইউনিটে আবেদন করতে হলে এসএসসি ও এইচএসসিতে আলাদাভাবে ৩সহ মোট ৭ থাকতে হবে। মোট ১২০ নম্বরের ভর্তি পরীক্ষা হবে। সেখানে মূল পরীক্ষায় (বহুনির্বাচনী ও লিখিত) ১০০ এবং এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার ফলাফলের ওপর ১০ করে মোট ২০ নম্বর থাকবে।

নির্ধারিত এসব শর্ত বাতিলের দাবিতে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পড়ে শোনান সিলেটের মদনমোহন কলেজের শিক্ষার্থী সানোয়ার হোসেন। বক্তব্যে বলা হয়, ‘করোনা পরিস্থিতির কারণে আমাদের জেএসসি ও এসএসসি পরীক্ষার ফল সমন্বয় করে অটো পাসের ঘোষণা দেওয়া হয়। এতে সব শিক্ষার্থী তাঁদের কাঙ্ক্ষিত ফল ধারণা করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ অন্য সব বিশ্ববিদ্যালয়ে আগের জিপিএকে মান হিসেবে ধরে ভর্তি পরীক্ষার প্রস্তুতি নেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষার নতুন বিজ্ঞপ্তিতে বিজ্ঞান বিভাগে ভর্তির আবেদনের জিপিএ ০.৫০ বৃদ্ধি করে ৮.৫০, বাণিজ্য বিভাগে ০.৫০ বৃদ্ধি করে ৮ ও মানবিক বিভাগে ১ বৃদ্ধি করে ৮ করা হয়েছে। এতে অনেক ভর্তি-ইচ্ছুক শিক্ষার্থী পরীক্ষা দেওয়ার সুযোগ পাবেন না। তাই আমরা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ সব বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনের কাছে আবেদনের ক্ষেত্রে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর আগের জিপিএ বহাল রাখার দাবি জানাই।’

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আজিমপুর গার্লস কলেজের শিক্ষার্থী মেরিল আহমেদ, হবিগঞ্জের বৃন্দাবন সরকারি কলেজের শিক্ষার্থী রাসেল আহমেদ, চাঁদপুরের ছেংগারচর সরকারি কলেজের শিক্ষার্থী জহিরুল ইসলাম, কুষ্টিয়া সরকারি গার্লস কলেজের শিক্ষার্থী আরোহী অনামিকা প্রমুখ।

বিজ্ঞাপন
ভর্তি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন