বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

উত্তর

ক. যেসব ব্যাংক গ্রাহকদের প্রয়োজন ও অর্থনীতির বিশেষ কোনো দিক নিয়ে ব্যাংকিং কাজ পরিচালনা করে তাকে বিশেষায়িত ব্যাংক বলে।

খ. ব্যাংক গ্রাহকদের দেওয়া ঋণ থেকে নতুন আমানতের সৃষ্টি করে। ব্যাংক মঞ্জুরকৃত ঋণের অর্থ সরাসরি নগদে না দিয়ে আমানত হিসাবের মাধ্যমে তা দেয়। ঋণগ্রহীতা চেকের মাধ্যমে তা উত্তোলন করেন। এভাবেই প্রদত্ত ঋণ ব্যাংকের জন্য নতুন আমানতের সৃষ্টি করে।

গ. উদ্দীপকের কেন্দ্রীয় ব্যাংক প্রথমে ঋণ নিয়ন্ত্রণের নির্বাচনমূলক পদ্ধতি ‘ঋণ বরাদ্দকরণ নীতি’ প্রয়োগ করেছে। এ পদ্ধতিতে কেন্দ্রীয় ব্যাংক বিশেষ খাত চিহ্নিত করে প্রয়োজন অনুযায়ী ঋণের পরিমাণ কম বা বেশি করে। যে খাতে ঋণ কমানো উচিত, সেই খাতে ঋণ দিতে বিধিনিষেধ আরোপ করে। আবার কোনো কোনো ক্ষেত্রে নির্দিষ্ট সীমাসহ ঋণ দিতে উত্সাহিত করে। উদ্দীপকে কর্তৃপক্ষ সড়ক ও যোগাযোগব্যবস্থা নিরাপদ করতে বিভিন্ন পদক্ষেপ নিচ্ছে। এ জন্য কেন্দ্রীয় ব্যাংক সব ব্যাংককে মোটরসাইকেল খাতে ঋণ দেওয়ার পরিমাণ ২০ থেকে ৫ শতাংশে আনার নির্দেশ দেয়। ঋণ নিয়ন্ত্রণের জন্য কেন্দ্রীয় ব্যাংক বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোকে বিশেষ কিছু খাতে ঋণ দিতে বিধিনিষেধ আরোপ করতে পারে। এখানে মূলত বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোর লাগামহীন ঋণ নিয়ন্ত্রণ করতে মোটরসাইকেল খাতে ঋণের পরিমাণই নির্দিষ্ট করা হয়েছে। ফলে সামর্থ্য থাকলেও বাণিজ্যিক ব্যাংক কেবল নির্দিষ্ট পরিমাণেই ঋণ দিতে পারবে।

ঘ. উদ্দীপকে কেন্দ্রীয় ব্যাংক ঋণ নিয়ন্ত্রণের ব্যবস্থার প্রত্যক্ষ আলোকে ‘রিজেন্ট ব্যাংক লি.’কে ২০ লাখ টাকা জরিমানা করেছে, যা যৌক্তিক হয়েছে বলে আমি মনে করি। কোনো তালিকাভুক্ত ব্যাংক ঋণ নিয়ন্ত্রণ কাজে বাধা তৈরি করলে কেন্দ্রীয় ব্যাংক যে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়, এই ব্যবস্থাকে প্রত্যক্ষ ব্যবস্থা গ্রহণ বলা হয়। এ ক্ষেত্রে কেন্দ্রীয় ব্যাংক অতিরিক্ত সুদ চার্জ, অতিরিক্ত রিজার্ভ সংরক্ষণের নির্দেশ, ঋণসুবিধা ও নিকাশঘর সুবিধা বাতিল করার মাধ্যমে শাস্তি দিতে পারে। উদ্দীপকে ভিয়েতনাম সরকার বড় শহরগুলোতে মোটরসাইকেলের ব্যবহার কমানোর সিদ্ধান্ত নেয়। এই লক্ষ্যে কেন্দ্রীয় ব্যাংক এই খাতে ঋণের পরিমাণ কমিয়ে দেয়। তালিকাভুক্ত সব ব্যাংক কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্দেশ মানলেও রিজেন্ট ব্যাংক লি. তা মেনে চলছিল না।

উদ্দীপকের রিজেন্ট ব্যাংক কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্দেশ মানতে বাধ্য। কিন্তু তা না মেনে ব্যাংকটি মোটরসাইকেল খাতে ঋণ দিয়েই যাচ্ছিল। ফলে প্রত্যক্ষ ব্যবস্থা গ্রহণের আওতায় দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংক এ ব্যাংকটিকে ২০ লাখ টাকা জরিমানা করে। এর ফলে ব্যাংকটি পরবর্তীকালে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্দেশ অমান্য করবে না। সুতরাং বলা যায়, রিজেন্ট ব্যাংক লি.-কে ২০ লাখ টাকা জরিমানা করার সিদ্ধান্ত সঠিক হয়েছে।


নির্মল ইন্দু সরকার, সাবেক প্রভাষক
সেন্ট গ্রেগরি হাইস্কুল অ্যান্ড কলেজ, ঢাকা

শিক্ষা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন