অধ্যায়-২: পরিবেশদূষণ

প্রিয় শিক্ষার্থী, আজ প্রাথমিক বিজ্ঞানের অধ্যায়-২ থেকে সংক্ষিপ্ত প্রশ্নোত্তর দেওয়া হলো।

# সংক্ষিপ্ত প্রশ্নের উত্তর:
প্রশ্ন: কোন কোন জিনিস মাটিদূষণের জন্য দায়ী উল্লেখ করো।
উত্তর: মাটির উর্বরতা নষ্ট হচ্ছে মাটিদূষণের প্রধান কারণ। মাটির সঙ্গে পলিথিন, প্লাস্টিক, কল-কারখানার বর্জ্য মিশে মাটিকে দূষিত করে। মাটির নিচে পলিথিন থাকলে সেটা পচে না। ফলে গাছের শিকড় মাটির গভীরে যেতে পারে না। ফলে গাছপালা জন্মে না। এ ছাড়া দাবানলে মাটি পুড়ে গেলে পোড়া মাটি অনুর্বর হয়ে যায়। অর্থাৎ কল-কারখানার বর্জ্য, পলিথিন, প্লাস্টিক, দাবানল প্রভৃতি মাটিদূষণের প্রধান কারণ।

প্রশ্ন: পানিদূষণের কারণগুলোর একটি তালিকা তৈরি করো।
উত্তর: পানিদূষণের কারণগুলোর তালিকা নিচে দেওয়া হলো—
১. দৈনন্দিন জীবনে ব্যবহৃত নানা রকম ময়লা-আবর্জনা পানিতে ফেলা।
২. কল-কারখানার বিভিন্ন রকম বর্জ্য পদার্থ পানিতে মেশা।
৩. রাসায়নিক সার ও কীটনাশক প্রয়োগ করা।
৪. পচা, মরা জীবজন্তু, কাঁচা পায়খানার বর্জ্য ইত্যাদি পানিতে ফেলা।

প্রশ্ন: বায়ুদূষণের কারণগুলো বর্ণনা করো।
উত্তর: বায়ুদূষণের কারণগুলো হলো—
১. কল-কারখানার ধোঁয়া থেকে বিষাক্ত গ্যাস বের হয়। এসব বিষাক্ত গ্যাস বায়ুকে দূষিত করে।
২. ইটের ভাটা, মোটর গাড়ির ধোঁয়া, অব্যবহৃত প্লাস্টিক পোড়ানো ধোঁয়া বায়ুকে দূষিত করে।
৩. ঘন বসতিপূর্ণ এলাকায় ময়লা-আবর্জনা ও মলমূত্র নিষ্কাশনের তেমন ভালো ব্যবস্থা থাকে না। ফলে এগুলো পচে দুর্গন্ধ ছড়ায়। এর ফলে নানা রকম বিষাক্ত গ্যাস সৃষ্টি হয়ে বায়ু দূষিত করে।
৪. তামাক, বিড়ি-সিগারেটের ধোঁয়াও বায়ুকে দূষিত করে।
৫. কার্বন ডাই-অক্সাইড বেড়ে গেলে বায়ু দূষিত হয়।
প্রধান শিক্ষক, ফকিরেরপুল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ঢাকা

বিজ্ঞাপন
শিক্ষা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন