বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

রুলে ২৩ বছরে বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেটে ২৫ জন রেজিস্টার্ড গ্র্যাজুয়েট প্রতিনিধি নির্বাচন অনুষ্ঠানে বিবাদীদের নিষ্ক্রিয়তা কেন বিশ্ববিদ্যালয় আইনের ২০ ধারা ও সংবিধান পরিপন্থী ঘোষণা করা হবে না এবং সিনেটে ২৫ জন রেজিস্টার্ড গ্র্যাজুয়েট প্রতিনিধি নির্বাচনে কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না, তা জানতে চাওয়া হয়। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য, রেজিস্ট্রার ও বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের সচিবসহ বিবাদীদের চার সপ্তাহের মধ্যে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

আইনজীবী আমিনুল হক হেলাল প্রথম আলোকে বলেন, সর্বশেষ ১৯৯৪ সালে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেটের রেজিস্টার্ড গ্র্যাজুয়েট প্রতিনিধি নির্বাচন হয়। এরপর আর নির্বাচনের উদ্যোগ দেখা যায়নি। ১৯৭৩ সালের রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় আইনের ২০ ধারা অনুসারে তিন বছর মেয়াদে সিনেটে ২৫ জন রেজিস্টার্ড গ্র্যাজুয়েট প্রতিনিধি নির্বাচনের কথা রয়েছে। কিন্তু সিনেটে শিক্ষক প্রতিনিধি নির্বাচনসহ অন্যান্য সদস্য পদে নির্বাচন হলেও রেজিস্টার্ড গ্র্যাজুয়েট প্রতিনিধি নির্বাচন হচ্ছে না, যা সংবিধানের ২৭ ও ৩১ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী বৈষম্যমূলক। এসব যুক্তিতে রিটটি করা হয়েছিল। শুনানি নিয়ে আদালত রুল দিয়ে এই নির্দেশ দেন।

শিক্ষা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন