default-image

‘র‌্যাগ-ডে’ উৎসবকে ‘অমানবিক, নিষ্ঠুর ও নীতিবহির্ভূত’ আখ্যা দিয়ে ক্যাম্পাসে তা নিষিদ্ধের কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্তের কথা গতকাল বুধবার জানিয়েছিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দপ্তর। তবে আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে এক বিজ্ঞপ্তিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দপ্তর জানিয়েছে, এ ধরনের কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি৷

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য মো. আখতারুজ্জামান প্রথম আলোকে বলেন, ‘ক্যাম্পাসে র‌্যাগ-ডে নিষিদ্ধ করা হয়নি। ভুল-বোঝাবুঝি ও অসাবধানতার কারণে বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দপ্তর থেকে তথ্যটি ভুলভাবে গণমাধ্যমে গিয়েছিল৷ গতকাল বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক কাউন্সিলের সভা ছিল৷ একাডেমিক কাউন্সিলে একাডেমিক বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়৷’

‘ক্যাম্পাসে র‌্যাগ-ডে নিষিদ্ধ করা হয়নি। ভুল-বোঝাবুঝি ও অসাবধানতার কারণে বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দপ্তর থেকে তথ্যটি ভুলভাবে গণমাধ্যমে গিয়েছিল৷ গতকাল বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক কাউন্সিলের সভা ছিল৷ একাডেমিক কাউন্সিলে একাডেমিক বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য মো. আখতারুজ্জামান

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য বলেন, ‘আমরা তো বিভিন্ন উৎসবের পৃষ্ঠপোষকতা করি৷ সেখানে এ ধরনের সিদ্ধান্ত কেন নেব? আসলে যেটি করা হয়েছে, তা হলো শিক্ষা সমাপনী অনুষ্ঠানকে কীভাবে আরও সুন্দর, নান্দনিক ও ভালো করা যায়, তার একটি নীতিমালা তৈরির জন্য আমরা একটি কমিটি করে দিয়েছি৷’

বিজ্ঞাপন

দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দপ্তর থেকে পাঠানো বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, গতকাল বুধবার জনসংযোগ দপ্তর থেকে পাঠানো বিজ্ঞপ্তিতে র‌্যাগ-ডে নিষিদ্ধ করা বিষয়ক তথ্যটি অসাবধানতাবশত ভিন্নভাবে উপস্থাপিত হয়েছে৷ এ জন্য দুঃখিত৷ মূলত একাডেমিক কাউন্সিলের সিদ্ধান্ত ছিল এ রকম: র‌্যাগ-ডে পালনের নামে ক্যাম্পাসে বা আবাসিক হলে অমানবিক, অসৌজন্যমূলক, শৃঙ্খলাপরিপন্থী কোনো আচরণ যাতে সংঘটিত না হয়, সেদিকে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে সতর্ক নজর রাখার জন্য বলা হয়৷ শিক্ষা সমাপনী, গ্র্যাজুয়েশন উৎসব পালনের লক্ষ্যে অনুষ্ঠান-উৎসব-বর্ণাঢ্য র‌্যালি প্রভৃতি আয়োজনের জন্য নীতিমালা প্রণয়ন করতে হবে। এ জন্য একটি কমিটি গঠন করা হয়৷

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, নীতিমালা প্রণয়নে গঠিত কমিটির আহ্বায়ক করা হয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক মুহাম্মদ সামাদকে। সদস্যসচিব হিসেবে আছেন প্রক্টর অধ্যাপক এ কে এম গোলাম রব্বানী৷ এ ছাড়া এই কমিটিতে সদস্য হিসেবে আছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা, জীববিজ্ঞান ও ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের ডিন৷

ক্যাম্পাসে র‌্যাগ-ডে উৎসব আয়োজন নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত হয়েছে—বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দপ্তরের বিজ্ঞপ্তির বরাতে গতকাল গণমাধ্যমে এই খবর প্রকাশিত হওয়ার পর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সমালোচনার ঝড় ওঠে৷ বর্তমান-সাবেক শিক্ষার্থীদের অনেকেই কর্তৃপক্ষের এই সিদ্ধান্তের কঠোর সমালোচনা করেন।

বিজ্ঞাপন
শিক্ষা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন