default-image

১৯৭১ সালের ১ মার্চ

পাকিস্তানের জাতীয় পরিষদের অধিবেশন স্থগিত ঘোষণা। আওয়ামী লীগের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর প্রক্রিয়া অনিশ্চিত হয়ে যায়।

১৯৭১ সালের ২ মার্চ

আওয়ামী লীগ ঢাকা শহরে হরতালের ডাক দেয়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে এক বিশাল সমাবেশে ছাত্রলীগ ও ডাকসুর নেতারা ‘দেশের মানচিত্রখচিত’ স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম পতাকা উত্তোলন করে।

১৯৭১ সালের ৩ মার্চ

সারা দেশে হরতালের ডাক। শুরু হয় সর্বাত্মক অসহযোগ আন্দোলন, যা ২৫ মার্চ পর্যন্ত অব্যাহত থাকে। ‘ছাত্র সংগ্রাম পরিষদ’ গঠিত হয়।

১৯৭১ সালের ৭ মার্চ

রেসকোর্স ময়দানে ( বর্তমান সোহরাওযার্দী উদ্যান ) বঙ্গবন্ধু ঐতিহাসিক ভাষণ দেন। বৃহত্তর আন্দোলনের ঘোষণা । ‘ঘরে ঘরে দুর্গ গড়ে’ তোলার ডাক দেন। শুরু হয় বাঙালির স্বাধীনতা প্রস্তুতি।

১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ

রাতে শুরু হয় পাকিস্তান সেনাবাহিনীর নারকীয় গণহত্যা । যার নাম ছিল ‘অপারেশন সার্চলাইট’। বিভিন্ন স্থানে বাঙালিদের প্রতিরোধও চলে।

১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ

২৫ মার্চ িদবাগত অর্থাৎ ২৬ মার্চের প্রথম প্রহরে বঙ্গবন্ধু স্বাধীনতার ঘোষণা প্রদান করে দেশবাসীকে স্বাধীনতার যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়ার আহ্বান জানান। এর পর এ রাতেই বঙ্গবন্ধুকে ৩২ নম্বর ধানমন্ডির বাসা থেকে পাকিস্তানি বাহিনী গ্রেপ্তার করে।

১৯৭১ সালের ২৬ মার্চ

প্রথম প্রহরে বঙ্গবন্ধুর স্বাধীনতার ঘোষণায় মুক্তিযুদ্ধ শুরু। চট্টগ্রামে ‘স্বাধীন বাংলা বেতার’ কেন্দ্র চালু।

১৯৭১ সালের ১০ এপ্রিল

গঠিত হয় মুজিবনগর বা বাংলাদেশ সরকার। মন্ত্রীসভা আনুষ্ঠানিকভাবে স্বাধীনতার ঘোষণাপত্র অনুমোদন করে।

তথ্যসূত্র: বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয়

# আমিনুল ইসলাম

বিজ্ঞাপন
শিক্ষা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন