বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষ পর্যন্ত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষার আবেদন ফি ছিল ৩৫০ টাকা। ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে ১০০ টাকা বাড়িয়ে করা হয় ৪৫০ টাকা। এরপর ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে আরও ২০০ টাকা বাড়িয়ে করা হয় ৬৫০ টাকা। এবার ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষে ফি আরও ৩৫০ টাকা বাড়িয়ে ১ হাজার টাকা করার প্রাথমিক সিদ্ধান্ত হয়েছে। অর্থাৎ পরপর তিন বছরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির আবেদন ফি বাড়ছে মোট ৬৫০ টাকা।

২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে আবেদন ফি ১০০ টাকা বাড়ানোর কারণ হিসেবে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ বলেছিল, প্রথমবারের মতো লিখিত অংশ থাকায় ফি ‘সামান্য’ বাড়ানো হয়েছে। ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে ২০০ টাকা বাড়ানোর কারণ হিসেবে বিভাগীয় শহরগুলোতে পরীক্ষা নেওয়ায় অতিরিক্ত খরচের কথা বলা হয়। এবার ৩৫০ টাকা বাড়ানোর কারণ হিসেবে কর্তৃপক্ষ বলছে, গত বছরের ফিতে খরচ সংকুলান হয়নি, তাই বাড়ানো হচ্ছে।

ভর্তি পরীক্ষার আবেদন ফি বাড়ানোর পেছনে মুনাফার কোনো চিন্তা নেই দাবি করে উপাচার্য মো. আখতারুজ্জামান প্রথম আলোকে বলেন, ‘বিভাগীয় শহরগুলোতে ভর্তি পরীক্ষার কেন্দ্র হওয়ায় আমাদের ব্যয়টা অনেক বেশি। গত বছর (২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষ) অনেক ভর্তুকি দিতে হয়েছে। যেটা নির্ধারণ করা হয়েছে, খরচ তার চেয়েও বেশি হতে পারে।’

উপাচার্য আরও বলেন, ‘গত বছরের অভিজ্ঞতা পর্যালোচনা করে ডিনরা বলেছেন, “এই ফি ১ হাজার ২০০ বা ১ হাজার ৩০০ টাকা হলে যথাযথ হয়।” শিক্ষার্থীদের কথা চিন্তা করে আমরা বলেছি, এটি কোনোভাবেই এক হাজার টাকার ওপরে নেওয়া যায় না। ভর্তুকি যাতে না দিতে হয়, সে জন্য হয়তো শিক্ষকেরা স্যাক্রিফাইস (ত্যাগ স্বীকার) করবেন। শিক্ষকদের অনেক কাজই বিনা পয়সায় করতে হবে।’ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে মুনাফা করার কোনো সুযোগ নেই বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিনস কমিটির সভায় হওয়া অন্য প্রাথমিক সিদ্ধান্তের মধ্যে রয়েছে ভর্তি পরীক্ষার জন্য আবেদনের যোগ্যতা কমানোর বিষয়টিও। এ ছাড়া ২০ এপ্রিল থেকে ১০ মে পর্যন্ত অনলাইনে ভর্তির আবেদন গ্রহণ করার সিদ্ধান্ত হয়েছে। আগামীকাল বৃহস্পতিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ ভর্তি কমিটির সভায় এ বিষয়ে চূড়ান্ত সুপারিশ করা হবে। গত বছরের মতো এবারও দেশের বিভাগীয় শহরগুলোতে ভর্তি পরীক্ষা নেওয়া হবে।

ভর্তি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন