বিজ্ঞাপন

বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার ও একাডেমিক কাউন্সিলের সচিব এস এম মনিরুল হাসান বলেন, প্রায় সব কটি বিভাগ ও ইনস্টিটিউটে পরীক্ষা আটকে আছে।

কারও একটি পরীক্ষা, আবার কারও দুটি-তিনটি। অনেকের ভাইভা, ব্যবহারিক পরীক্ষাও আটকে আছে। ফলে অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে এসব পরীক্ষা নেওয়া হবে।

অবশ্য করোনার আগে যাঁদের পরীক্ষা একেবারে শুরুই হয়নি, তাঁরা তালিকার শেষে থাকবে। মূলত, কয়েকটি হয়ে আটকে আছে এমন বর্ষের পরীক্ষা নিয়ে নেওয়া হবে।
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে বর্তমানে ৯টি অনুষদে ৪৮টি বিভাগ ও ৬টি ইনস্টিটিউট রয়েছে।

শিক্ষার্থী আছেন প্রায় ২৫ হাজার, বিপরীতে শিক্ষক আছেন ৯২০ জন। এ ছাড়া শিক্ষার্থীদের জন্য হল রয়েছে ১৩টি। এর মধ্যে ছাত্রদের ৮টি, ছাত্রীদের জন্য ৫টি।

পরীক্ষা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন