বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

একদিন শহর থেকে মামা এলেন ওদের বাড়ি বেড়াতে। রূপক ও তিন্নি মামাকে নিয়ে গেল পাখিদের গান শোনাতে, পাতার ঝংকার শোনাতে। মামা বললেন, গাছ, পাখি, বাতাস, নদীর ঢেউ সবারই আছে নিজস্ব ভাষা। তবে তা আমাদের ভাষার মতো নয়।

বাংলা, ইংরেজি, আরবি, হিন্দি এগুলো মানুষের ভাষা। অন্য সব মানুষের মতো আমাদেরও আছে মাতৃভাষা। আমাদের মাতৃভাষায় আমরা মনের সব কথা প্রকাশ করতে পারি। এমন মধুর ভাষা পৃথিবীতে আর নেই। এই ভাষার জন্য আমাদের আন্দোলন করতে হয়েছে, অনেক ত্যাগ স্বীকার করতে হয়েছে। এই ভাষাকে তাই আমরা বলি ‘শহিদ ছেলের দান’।

৩. প্রদত্ত শব্দের অর্থ বুঝে শূন্যস্থান পূরণ
করো।

অপরূপ— যার রূপের শেষ নেই, অতুলনীয়

ঝংকার— সুরেলা আওয়াজ

মুগ্ধ— আনন্দিত, বিমোহিত

আন্দোলন— সমবেতভাবে দাবি প্রকাশ

শহিদ— ন্যায়ের জন্য প্রাণ বিসর্জনকারী

ক. — সৌন্দর্যের দেশ বাংলাদেশ।

খ. সুরের — মন আনন্দে ভরে উঠল।

গ. বাংলাদেশের রূপ দেখে আমি — হলাম।

ঘ. ১৯৫২ সালে ভাষা — সংঘটিত হয়েছিল।

ঙ. মুক্তিযুদ্ধে অনেক মুক্তিযোদ্ধা — হন।

৪. অনুচ্ছেদ পড়ে নিচের প্রশ্নগুলোর উত্তর
লেখো।

ক. রূপগঞ্জ গ্রামটিকে সুন্দর বলা হয়েছে কেন? তা পাঁচটি বাক্যে লেখো।

খ. রূপক কিসের গানে মুগ্ধ হয়? তার মুগ্ধতার বিষয়টি সম্পর্কে পাঁচটি বাক্য লেখো।

গ. ‘এমন মধুর ভাষা পৃথিবীতে আর নেই’
—কথাটি ব্যাখ্যা করো।

৩ নম্বর প্রশ্নের উত্তর

ক. অপরূপ সৌন্দর্যের দেশ বাংলাদেশ।

খ. সুরের ঝংকারে মন আনন্দে ভরে
উঠল।

গ. বাংলাদেশের রূপ দেখে আমি
মুগ্ধ হলাম।

ঘ. ১৯৫২ সালে ভাষা আন্দোলন সংঘটিত হয়েছিল।

ঙ. মুক্তিযুদ্ধে অনেক মুক্তিযোদ্ধা শহিদ হন।

৪ নম্বর প্রশ্নের উত্তর

ক. অপরূপ পরিবেশের জন্য রূপগঞ্জ গ্রামটিকে সুন্দর বলা হয়েছে। গ্রামটিতে রয়েছে তালপুকুর, গাছের সারি ও তার পাশেই ফসলের মাঠ। ছায়া সুনিবিড় এই গ্রামের মাঠজুড়ে সোনালি ফসলের সমারোহ। চড়ুই, টুনটুনি, দোয়েল, শ্যামা—এসব পাখি গান গেয়ে যেমন সবাইকে মাতিয়ে রাখে, তেমনি গ্রামের শোভাও বাড়ায়। এসব প্রাকৃতিক উপকরণ রূপগঞ্জ গ্রামটিকে অপরূপ সৌন্দর্যে ভরিয়ে তুলেছে।

খ. দোয়েল, শ্যামা, কোকিলের গানে রূপক
মুগ্ধ হয়। গ্রামের গাছপালা, পুকুর এবং পুকুরের পাশেই ফসলের খেত রূপকের মনকে আকর্ষণ করে। এ ছাড়া চড়ুই, টুনটুনি, দোয়েল, শ্যামা, কোকিলের মিষ্টিমধুর সুর তার মুখস্থ। মাঝেমধ্যে হিমেল হাওয়া তাকে শীতলতার অনুভূতি দেয়। গ্রামের পরিবেশ ও মানুষের সঙ্গে প্রকৃতির মিতালি রূপককে
মুগ্ধ করে।

গ. বাংলা আমাদের প্রিয় মাতৃভাষা। জন্মের
পর মায়ের কাছ থেকেই আমরা এই ভাষা শিখে থাকি। এ ভাষার মাধ্যমেই আমরা আমাদের মনের ভাব প্রকাশ করে থাকি। জন্ম থেকে যে ভাষায় কথা বলি, সেই ভাষাই আমাদের প্রাণের ভাষা। তাই আমাদের
কাছে বাংলা ভাষার মতো মধুর ভাষা পৃথিবীতে আর নেই।

পরীক্ষা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন