default-image

যে সফটওয়্যার ব্যবহার করে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে অনলাইনে ভর্তি পরীক্ষা নেওয়ার চিন্তাভাবনা করা হচ্ছে, সেটির সম্ভাব্যতা যাচাইয়ে একটি বিশেষজ্ঞ কমিটি গঠন করেছে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি)। আগামী ৩ নভেম্বর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল ইউনিভার্সিটির উপাচার্য মুনাজ আহমেদের তৈরি করা সফটওয়্যারটি যাচাই করবে ওই বিশেষজ্ঞ কমিটি।
আজ বৃহস্পতিবার ইউজিসির এক সভায় এই সিদ্ধান্ত হয়। ইউজিসির সচিব (অতিরিক্ত দায়িত্বে) ফেরদৌস জামান প্রথম আলোকে বলেন, প্রস্তাবিত সফটওয়্যারটি যাচাইয়ের জন্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিভাগের শিক্ষক হাফিজ মুহম্মদ হাসান বাবুসহ মোট পাঁচজন বিশেষজ্ঞ নিয়ে কমিটি গঠন করা হয়েছে। তাঁরা প্রতিবেদন দেওয়ার পর শিক্ষা মন্ত্রণালয়, ইউজিসি এবং উপাচার্যরা মিলে আবার বসে পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

বিজ্ঞাপন

চারটি স্বায়ত্তশাসিত বিশ্ববিদ্যালয় এবং বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় বাদে বাকি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে অনলাইনে ভর্তি পরীক্ষা নেওয়ার কথা চিন্তাভাবনা করা হচ্ছে। এই বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে তিনটি গুচ্ছ করে ভর্তি পরীক্ষা নেওয়ার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।
দেশে মোট পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ৪৬টি। এর মধ্যে সরাসরি শিক্ষার্থী ভর্তি করা হয় ৩৯টিতে। এবার এই ৩৯টির মধ্যে ৫টি বিশ্ববিদ্যালয় আগেই সিদ্ধান্ত নিয়েছে, তারা তাদের মতো করে ভর্তি পরীক্ষা নেবে।

১৭ অক্টোবর বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর উপাচার্যদের সংগঠন বিশ্ববিদ্যালয় পরিষদের এক সভায় করোনাভাইরাস সংক্রমণের কারণে এবার পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে অনলাইনে ভর্তি পরীক্ষা নেওয়ার বিষয়ে নীতিগত সিদ্ধান্ত হয়। এ জন্য বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল ইউনিভার্সিটির উপাচার্যের নেতৃত্বে তৈরি করা সফটওয়্যারকে কাজে লাগানোর আলোচনা হয়। এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে ইউজিসিকে চিঠি দেয় বিশ্ববিদ্যালয় পরিষদ। তারই ধারাবাহিকতায় আজ ইউজিসির সভায় বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হয়।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0