বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

১.
কোভিড-১৯ মহামারি প্রতিরোধে লকডাউন বা অন্য কোনো প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থাকালীন চলমান শিক্ষা কার্যক্রম বন্ধ থাকলে এবং প্রতিষ্ঠানটি কোভিড ডেডিকেটেড হাসপাতাল হলে শিক্ষার্থীরা ওই হাসপাতালে কোভিড চিকিৎসাসেবা প্রদান করবেন।

২.
প্রতিষ্ঠানটি কোভিড ডেডিকেটেড হাসপাতাল না হলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর অন্যান্য হাসপাতালের চাহিদার নিরিখে শিক্ষার্থীদের চিকিৎসার জন্য পদায়ন করবেন।

৩.
যেসব চিকিৎসকের অনুকূলে প্রেষণ বা শিক্ষাছুটির আদেশ জারি করা হয়েছে কিন্তু কোর্সের কার্যক্রম শুরু হয়নি, সেসব চিকিৎসক স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নির্দেশনা মোতাবেক বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা সেবায় নিয়োজিত হবেন।

আদেশের অনুলিপি অবগতি ও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সেবা বিভাগের সিস্টেম এনালিস্ট, স্বাস্থ্যসচিবের একান্ত সচিব ও অতিরিক্ত সচিবের ব্যক্তিগত কর্মকর্তাসহ সংশ্লিষ্ট সবার কাছে পাঠানো হয়েছে।

উচ্চশিক্ষা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন