default-image

আমাদের লক্ষ্য

জীবন ও জীবিকার জন্য প্রয়োজনীয় জ্ঞান ও দক্ষতা অর্জন করাই বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে শিক্ষার একমাত্র উদ্দেশ্য নয়। বিশ্লেষণী চিন্তা ও উদ্ভাবন স্পৃহার স্ফুরন ঘটানো শিক্ষার অন্যতম উদ্দেশ্য বলে আমরা মনে করি। বিশ্বায়ন ও প্রযুক্তির সম্প্রসারণের ফলে আমাদের ছেলেমেয়েরা তীব্র প্রতিযোগিতার মুখে পড়ছে। এই প্রতিযোগিতাকে মাথায় রেখেই আমরা শিক্ষার্থীদের তৈরি করার চেষ্টা করছি।

বিশেষ অর্জন

২০১৯, ২০২০ ও ২০২১ সালের কিউএস র‌্যাঙ্কিংয়ে যথাক্রমে বাংলাদেশের ৬টি, ৭টি ও ১১টি বিশ্ববিদ্যালয় জায়গা করে নিয়েছে। তিন বছরেই ধারাবাহিকভাবে ইউআইইউ র‌্যাঙ্কিংয়ে ছিল। আরও একটি বিশেষ অর্জন হলো, দ্য ইমপ্যাক্ট র‌্যাঙ্কিং এসডিজি-১ বিভাগে বিশ্বের ৮০টি বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে জায়গা করে নেওয়া।

সহশিক্ষা কার্যক্রম

ইউআইইউতে কালচারাল ক্লাব, স্পোর্টস ক্লাব, ডিবেট ক্লাব, থিয়েটার অ্যান্ড ফিল্ম ক্লাব, কম্পিউটার ক্লাব, ইলেকট্রনিকস ক্লাব, রোবটিকস ক্লাব, সোশ্যাল সার্ভিসেস ক্লাবসহ মোট ১২টি ক্লাব ছাত্রছাত্রীদের সহশিক্ষা কার্যক্রমে অবদান রাখছে। ছেলেমেয়েদের ভবিষ্যৎ কর্মক্ষেত্রের জন্য প্রস্তুত করতে অ্যাকাউন্টিং ফোরাম, এইচআর ফোরাম, মার্কেটিং ফোরাম, ফাইন্যান্স ফোরাম, এন্টারপ্রিনিউয়ারশিপ ফোরাম, রাইটার্স ফোরামসহ মোট ১২টি ফোরাম সাহায্য করছে। এই ক্লাব ও ফোরামগুলোর মাধ্যমে ছাত্রছাত্রীরা সারা বছর সেমিনার, কর্মশালা, সিম্পোজিয়াম, ক্যারিয়ার ফেয়ার, অভ্যন্তরীণ ও আন্তবিশ্ববিদ্যালয় প্রতিযোগিতাসহ বিভিন্ন কর্মকাণ্ডে ব্যস্ত থাকে।

আন্তর্জাতিক সম্পৃক্ততা

ইউআইইউর সিআইএসি (সেন্টার ফর ইন্টারন্যাশনাল অ্যাফেয়ার্স অ্যান্ড কো–অপারেশন) ক্যাম্পাসের সব রকমের আন্তর্জাতিক কর্মকাণ্ড পরিচালনা করে। এসব কর্মকাণ্ডের মধ্যে আছে বিদেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি ও ক্রেডিট ট্রান্সফারে সহায়তা করা, বিদেশি ছাত্রছাত্রীদের ইউআইইউতে ভর্তির ব্যাপারে সাহায্য করা, বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় সহযোগিতা চুক্তি সম্পাদন, যৌথ গবেষণা প্রকল্প সম্পাদন, ছাত্র ও শিক্ষক বিনিময় প্রকল্প প্রভৃতি। এ পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, অস্ট্রেলিয়া, কানাডা, মালয়েশিয়া, ও ভারতসহ ২০টি বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে ইউআইইউর দ্বিপক্ষীয় সহযোগিতা চুক্তি সম্পাদিত হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

গবেষণা কার্যক্রম

দেশের অর্থনীতিতে কার্যকর ভূমিকা এবং বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ে সম্মানজনক স্থানে থাকার লক্ষ্য নিয়ে ইউআইইউ গবেষণার ওপর অগ্রাধিকার দিচ্ছে। গবেষণায় যাবতীয় কর্মকাণ্ড পরিচালনার দায়িত্বে নিয়োজিত ইনস্টিটিউট ফর অ্যাডভান্সড রিসার্চ (আইএআর)। ইউআইইউর সেন্টার ফর এনার্জি রিসার্চ (সিইআর) বাংলাদেশের অধিকাংশ সৌরবিদ্যুৎ প্রকল্পে কারিগরি সহায়তা দিচ্ছে। অ্যাডভান্সড ইন্টেলিজেন্ট মাল্টিডিসিপ্লিনারি সিস্টেমস ল্যাব (এআইএমএস ল্যাব) সর্বপ্রথম বাংলাদেশের স্বাস্থ্য খাতে সিএমইডি হেলথ নামের একটি স্টার্টআপ কোম্পানির সূচনা করেছে। সিএমইডি হেলথ দেশে একটি কার্যকর ক্লাউড বেইজড রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থাপনা পদ্ধতির সূচনা করেছে।

এ ছাড়া এআইএমএস ল্যাব প্রতিবন্ধী শিশুদের জন্য স্মার্ট ফোন অ্যাপসের মাধ্যমে সহজে পড়াশোনা শেখানোর উপায় উদ্ভাবন করেছে। ইউআইইউ প্রতিবছর বিভিন্ন বিষয়ভিত্তিক একাধিক আন্তর্জাতিক কনফারেন্স আয়োজন করে। এসব সভায় বিশ্বের বিভিন্ন স্বনামধন্য বিশ্ববিদ্যালয় সহযোগী আয়োজক হিসেবে ভূমিকা পালন করে। শিক্ষকদের স্বীকৃত জার্নালে প্রকাশনার জন্য আর্থিক প্রণোদনা দেওয়া হয়। এ ছাড়া প্রতিবছর বিভিন্ন গবেষণা প্রকল্পে স্বীকৃত জার্নালে প্রকাশনার শর্তে দেওয়া হয় আর্থিক অনুদান।

উচ্চশিক্ষা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন