default-image

রাজধানীতে অনুমোদনহীন ‘লন্ডন স্কুল অব কমার্স, ঢাকা (এলএসসি)’ নামের একটি বিদেশি বিশ্ববিদ্যালয়ের স্টাডি সেন্টার চলছে বলে জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি)। যুক্তরাজ্যের লন্ডন স্কুল অব কমার্সের নাম ব্যবহার করছে এই স্টাডি সেন্টার। এ জন্য ভর্তি-ইচ্ছুক শিক্ষার্থী ও চাকরিপ্রত্যাশীদের এ বিষয়ে সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়েছে ইউজিসি।

আজ মঙ্গলবার ইউজিসির সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, এ স্টাডি সেন্টার থেকে যুক্তরাজ্যের ওয়ারেহাম গ্লেন্ডওয়ার বিশ্ববিদ্যালয়, ইউনিভার্সিটি অব বেডফোর্ডশায়ার এবং স্কটিশ কোয়ালিফিকেশন অথরিটির অধীনে বিভিন্ন ধরনের ডিপ্লোমা, স্নাতক, মাস্টার্স এবং ডক্টরেট ডিগ্রি প্রদান করছে। স্টাডি সেন্টারটির নামে ২০০৭ সালে একটি ওয়েবসাইট (www.lscdhaka.org/) খোলা হয়েছে এবং শিক্ষার্থী ভর্তির বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়েছে, যা সম্প্রতি ইউজিসির নজরে এসেছে। এ স্টাডি সেন্টার পরিচালনায় সরকার ও কমিশনের অনুমোদন নেই।

স্টাডি সেন্টারের ওয়েবসাইট পর্যালোচনা করে ইউজিসি দেখেছে, এটি ২০০৫ সাল থেকে পরিচালনা করে আসছে। রাজধানীর গুলশান-২–এর গুলশান সেন্টার এবং বনানীর ওশান টাওয়ারে এলএসসির দুটি অফিস খোলা হয়েছে। এই দুই কেন্দ্র থেকে বিএ (অনার্স) বিজনেস স্টাডিজ, মাস্টার্স অব বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (এমবিএ), ফাউন্ডেশন ইন বিজনেস এবং প্রফেশনাল ডিপ্লোমা ইন ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস ডিগ্রি প্রদান করা হচ্ছে। এসব কোর্সের মেয়াদ আট মাস থেকে দুই বছর।

default-image

ওয়েবসাইটটিতে আরও বলা হয়েছে, এলএসসি ঢাকা সাশ্রয়ী মূল্যে বিএ (অনার্স) এবং এমবিএর মতো ফাস্ট ট্র্যাক কোর্সের ডিগ্রি দিচ্ছে।

সরকারের সংশ্লিষ্ট সব কর্তৃপক্ষকে অনুমোদনহীন এই স্টাডি সেন্টার বন্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নিতে অনুরোধ করেছেন ইউজিসির বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত সদস্য বিশ্বজিৎ চন্দ।

বিজ্ঞাপন
উচ্চশিক্ষা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন