default-image

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে (ঢাবি) সান্ধ্য এমবিএ কোর্সে ভর্তি পরীক্ষা অবশেষে স্থগিত করা হয়েছে৷

আজ শুক্রবার বেলা ১১টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের এই প্রোগ্রামের ৪৫তম ব্যাচের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। রাজধানীর আজিমপুর গভর্নমেন্ট গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজে এই পরীক্ষার আয়োজন করা হয়েছিল৷ তবে শেষ পর্যন্ত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের অনুরোধে ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের ভারপ্রাপ্ত ডিন এই পরীক্ষা স্থগিত করেন৷

নীতিমালা চূড়ান্ত না হওয়া পর্যন্ত ঢাবির সান্ধ্য কোর্সে ভর্তি কার্যক্রম স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা পরিষদ (একাডেমিক কাউন্সিল)। কিন্তু নীতিমালা হওয়ার আগেই বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে না জানিয়ে সান্ধ্য এমবিএ কোর্সে ভর্তি পরীক্ষা নিতে যাচ্ছিল ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদ। প্রথম আলো অনলাইনসহ বিভিন্ন গণমাধ্যমে গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে এ নিয়ে খবর প্রকাশিত হয়। পরে আজ সকালে এই পরীক্ষা স্থগিত করা হয়৷

বিজ্ঞাপন
গণমাধ্যমের প্রতিবেদনগুলো দেখার পর আজ সকালে এ বিষয়ে ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের ভারপ্রাপ্ত ডিনের সঙ্গে আমার কথা হয়৷ সান্ধ্য কোর্সের নীতিমালা না হওয়া পর্যন্ত আমি তাঁকে ভর্তি পরীক্ষা ও এ-সংক্রান্ত কার্যক্রম বন্ধ রাখতে বলি৷ তখন তিনি আজকের পরীক্ষাটি স্থগিত করেন
মো. আখতারুজ্জামান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য

এ ব্যাপারে বক্তব্য জানতে ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের ভারপ্রাপ্ত ডিন ও সান্ধ্য এমবিএ প্রোগ্রামের প্রধান সমন্বয়কারী অধ্যাপক মুহাম্মাদ আবদুল মঈনের মুঠোফোনে একাধিকবার কল করা হয়। কিন্তু তাঁর সাড়া পাওয়া যায়নি৷

তবে ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের ডিন কার্যালয়ের সহকারী রেজিস্ট্রার (একাডেমিক) মো. আরিফুল ইসলাম আজ বেলা ১১টার দিকে প্রথম আলোকে বলেন, ‘আমাদের আজকের (শুক্রবার) ভর্তি পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে৷’

এ বিষয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য মো. আখতারুজ্জামান আজ বেলা ১১টার পর প্রথম আলোকে বলেন, ‘গণমাধ্যমের প্রতিবেদনগুলো দেখার পর আজ সকালে এ বিষয়ে ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের ভারপ্রাপ্ত ডিনের সঙ্গে আমার কথা হয়৷ সান্ধ্য কোর্সের নীতিমালা না হওয়া পর্যন্ত আমি তাঁকে ভর্তি পরীক্ষা ও এ-সংক্রান্ত কার্যক্রম বন্ধ রাখতে বলি৷ তখন তিনি আজকের পরীক্ষাটি স্থগিত করেন৷’

default-image

এই পরীক্ষার বিষয়ে কিছুই জানতেন না বলে গতকাল প্রথম আলোকে জানিয়েছিলেন উপাচার্য মো. আখতারুজ্জামান ও সহ-উপাচার্য (প্রশাসন) মুহাম্মদ সামাদ ও সহ-উপাচার্য (শিক্ষা) এ এস এম মাকসুদ কামাল৷ তাঁরা গতকাল প্রথম আলোকে বলেছিলেন, সান্ধ্য কোর্স নিয়ে এখনো কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। এ কোর্সের নীতিমালা চূড়ান্ত না হওয়া পর্যন্ত এ ধরনের পরীক্ষা হওয়ার কথা নয়৷

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে চলমান অনিয়মিত কোর্সগুলোর যৌক্তিকতা যাচাই ও পর্যালোচনার জন্য গঠিত কমিটির প্রতিবেদন অনুযায়ী, ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদে এসব কোর্সে প্রতিবছর ৪৫টি ব্যাচে ২ হাজার ৯৬৫ জন শিক্ষার্থী ভর্তি হন। ক্লাস নেন ২৩০ জন শিক্ষক। অভিযোগ রয়েছে, সান্ধ্য কোর্সের কারণে শিক্ষকেরা নিয়মিত শিক্ষার্থীদের প্রতি কম মনোযোগী থাকেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0