বাংলাদেশে উচ্চশিক্ষার মান উন্নয়নে সাহায্য এবং এ–সংক্রান্ত পদ্ধতি তৈরিতে প্রয়োজনীয় সহযোগিতা দিতে চেয়ে আগ্রহ প্রকাশ করেছে অস্ট্রেলিয়া। গতকাল মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) সঙ্গে ভার্চ্যুয়াল সভায় অস্ট্রেলিয়ান এডুকেশন ও স্কিলস অ্যান্ড এমপ্লয়মেন্ট বিভাগের প্রতিনিধিরা এ আগ্রহের কথা প্রকাশ করেন।

ইউসজিসির কমিশনের সচিব (অতিরিক্ত দায়িত্ব) ড. ফেরদৌস জামান সভায় বাংলাদেশের উচ্চশিক্ষা খাতের সার্বিক চিত্র তুলে ধরেন। তিনি বলেন, ‘বিগত বছরগুলোতে বাংলাদেশের উচ্চশিক্ষার মানোন্নয়নে সরকারিভাবে বহুমুখী পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। শ্রমবাজার উপযোগী মানবসম্পদ গড়ে তুলতে বেশ কয়েকটি বিশেষায়িত বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে নতুন নতুন বিষয় অনুমোদন এবং শিক্ষার যথাযথ মান বজায় রাখতে বাংলাদেশ অ্যাক্রিডিটেশন কাউন্সিল প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। বাংলাদেশের উচ্চশিক্ষার তথ্য ব্যবস্থাপনাও আধুনিকীকরণ করা হচ্ছে, যা বাংলাদেশের শিক্ষাব্যবস্থার মূল্যায়নে সহায়ক হবে।

বিজ্ঞাপন

অনলাইন সভায় দিল্লি থেকে অস্ট্রেলিয়ান হাইকমিশনের শিক্ষা ও গবেষণাবিষয়ক কাউন্সিলর ব্রেট গাল্ট-স্মিথ অস্ট্রেলিয়ান শিক্ষা ও মানোন্নয়ন পদ্ধতির ওপর বক্তব্য তুলে ধরেন। বাংলাদেশের উচ্চশিক্ষার মান্নোয়নে সহযোগিতা দেওয়ার আশ্বাসও দেন তিনি।

সভায় মাল্টিলেটারাল পলিসি ইন্টারন্যাশনাল পার্টনারশিপ ব্রাঞ্চের পরিচালক জেন আজুরিন অস্ট্রেলিয়ার কোয়ালিফিকেশনস রিকগনিশেন সিস্টেমের ওপর বক্তব্য দেন। তিনি বাংলাদেশের কান্ট্রি এডুকেশন প্রোফাইল হালনাগাদের ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় তথ্য সরবরাহের জন্য ইউজিসির প্রতি আহ্বান জানান।

কমিশনের তথ্য ব্যবস্থাপনা, যোগাযোগ এবং প্রশিক্ষণ বিভাগের পরিচালক (অতিরিক্ত দায়িত্ব) মোহাম্মদ মাকছুদুর রহমান ভূঁইয়া বাংলাদেশের কোয়ালিফিকেশনস রিকগনিশেন সিস্টেম এবং এর সঙ্গে যুক্ত বিভিন্ন সংগঠন সম্পর্কে বিস্তারিত তুলে ধরে বক্তব্য দেন।

সভায় আরও বক্তব্য দেন খুলনা বিশ্ববিদালয়ের অধ্যাপক ড. মুরছালিন বিল্লাহ এবং অস্ট্রেলিয়ায় বাংলাদেশ হাইকমিশনের কাউন্সিলর তাহলীল মুন। তথ্যসূত্র: বাসস

উচ্চশিক্ষা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন