বিজ্ঞাপন

অনুষ্ঠানে ডেভেলপমেন্ট স্টাডিজ বিভাগের শিক্ষক এম আবু ইউসুফ ও কাজী মারুফুল ইসলাম দুটি পৃথক প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন।

মো. আখতারুজ্জামান তাঁর বক্তব্যে বলেন, করোনাকালে প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর মানুষের কষ্ট লাঘবে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে ২ হাজার ৫০০ টাকা করে অনুদান দেওয়া হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রীর এই উদ্যোগের সঙ্গে সমাজের বিত্তবানদের শামিল হওয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর তহবিল থেকে ৩৫ লাখ মানুষকে সহায়তা করা হচ্ছে। এখন সমাজের বিত্তবানদের প্রধানমন্ত্রীর এই উদ্যোগ অনুসরণ করে তাদেরকেও মানুষের পাশে দাঁড়াতে হবে।

রাশেদা কে চৌধূরী বলেন, করোনাকালে কোনোভাবে যেন শিক্ষা খাত উপেক্ষিত না থাকে। তাহলে আমরা পিছিয়ে পড়ব। দীর্ঘদিন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় শিক্ষার্থীরা ইতিমধ্যে অনেক পিছিয়ে গেছে। এই ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে আগামী অর্থবছরে শিক্ষা খাতের জন্য স্বতন্ত্র বাজেট প্রণয়নের সুপারিশ করেন তিনি।

অনুষ্ঠানে সেলিম রায়হান বাজেট বাস্তবায়ন সক্ষমতা বাড়ানোর ওপর গুরুত্বারোপ করেন।

উচ্চশিক্ষা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন