বিকেএসপিতে ক্রীড়াবিজ্ঞানে পড়ার সুযোগ

বিজ্ঞাপন
default-image

পেশাদার খেলোয়াড়ের শারীরিক ফিটনেস যেমন জরুরি, তেমনি প্রয়োজন ক্রীড়াকৌশল ও মানসিক প্রশান্তি। ক্রীড়াবিদদের জন্য এই বিষয়গুলো নিশ্চিত করেন একজন ক্রীড়াবিজ্ঞান বিশেষজ্ঞ।


ক্রীড়াবিদের শারীরিক, মানসিক ও কৌশলগত বিষয়গুলো নিয়েই যে তাঁদের কাজ।
দেশে ক্রীড়াবিজ্ঞানে দক্ষ জনবল তৈরিতে কাজ করছে বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান (বিকেএসপি)। ঢাকার সাভারে অবস্থিত বিকেএসপিতে ক্রীড়াবিজ্ঞানের ওপর অনাবাসিক ১০ মাস মেয়াদি স্নাতকোত্তর ডিপ্লোমা করানো হয়। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে এই ডিপ্লোমার জন্য ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে ভর্তি কার্যক্রম শুরু হয়েছে। আবেদনের করা যাবে ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ভর্তির যোগ্যতা
ক্রীড়াবিজ্ঞানের চারটি বিষয়ের ওপর এই ডিপ্লোমা ডিগ্রি প্রদান করা হয়। এগুলো হলো এক্সারসাইজ ফিজিওলজি, স্পোর্টস সাইকোলজি, স্পোর্টস বায়োমেকানিকস ও সায়েন্স অব স্পোর্টস ট্রেনিং। যেকোনো বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক বা সমমান ডিগ্রিধারী শিক্ষার্থীরা এই ডিপ্লোমা কোর্সে আবেদন করতে পারবেন। তবে মাধ্যমিক, উচ্চমাধ্যমিক ও স্নাতক—এই তিনটি পরীক্ষার কমপক্ষে একটিতে দ্বিতীয় বিভাগ অথবা জিপিএ-২ থাকতে হবে। এক্সারসাইজ ফিজিওলজি ও স্পোর্টস বায়োমেকানিকস বিষয়ে ভর্তির জন্য বিজ্ঞানে স্নাতক হতে হবে। আর স্পোর্টস সাইকোলজি বিষয়ে ভর্তির আবেদন করতে পারবেন স্নাতকে মনোবিজ্ঞান বিষয়ে ডিগ্রিধারীরা। সায়েন্স অব স্পোর্টস ট্রেনিং বিষয়ে ভর্তি হতে চাইলে আবেদনকারীকে বিপিএড বা এমপিএড (শারীরিক শিক্ষা) ডিগ্রিধারী হতে হবে। এ ছাড়া ভর্তির ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার দেওয়া হবে বিভাগীয় পর্যায়ের খেলোয়াড় ও প্রশিক্ষকদের।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

শিক্ষাব্যয়
নিবন্ধন ও ভর্তি ফি বাবদ ভর্তির সময় প্রয়োজন হবে পাঁচ হাজার টাকা। তার সঙ্গে ফেরতযোগ্য জামানত হিসেবে আরও পাঁচ হাজার টাকা জমা দিতে হবে। এ ছাড়া মাসিক বেতন ৫০০ টাকা।


আবেদন করতে
আবেদন করতে হবে অনলাইনে। বিকেএসপির ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে ‘রেজিস্ট্রেশন’ ক্লিক করে আবেদন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে হবে।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আবেদনের পর
করোনাকালে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা সাপেক্ষে আবেদনকারীদের লিখিত পরীক্ষা নেওয়া হবে। প্রাথমিকভাবে ১২ অক্টোবর বিকেএসপির ক্রীড়াবিজ্ঞান শাখায় সকাল ১০টায় এ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা। লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রার্থীদের ২৯ অক্টোবর সাক্ষাৎকার অনুষ্ঠিত হবে। এ দিন উপপরিচালকের (ক্রীড়াবিজ্ঞান) অফিসকক্ষে অনলাইনে রেজিস্ট্রেশন ফরমের প্রিন্ট কপি এবং মূল সনদসহ সাক্ষাৎ করতে হবে। চূড়ান্তভাবে নির্বাচিত শিক্ষার্থীদের ফল বিকেএসপির ওয়েবসাইট ও খুদে বার্তার মাধ্যমে জানানো হবে।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

নির্বাচিত হলে
ভর্তির জন্য নির্বাচিত হলে আবেদনকারীর সংশ্লিষ্ট বোর্ড ও বিশ্ববিদ্যালয়ের পাসের সনদ ও নম্বরপত্রের সত্যায়িত ফটোকপি প্রয়োজন হবে। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় ছাড়া অন্য কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক হলে সংশ্লিষ্ট বিশ্ববিদ্যালয় থেকে গৃহীত মাইগ্রেশন সনদের সত্যায়িত ফটোকপি আনতে হবে। স্নাতক বা সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণসংক্রান্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রধানের প্রশংসাপত্রও প্রয়োজন হবে ভর্তির সময়। কর্মজীবীদের যথাযথ কর্তৃপক্ষের অনুমতিপত্র জমা দিতে হবে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন