default-image

পরীক্ষায় ভালো ফলাফলে উপহার মেলেই। করোনাকালে ঘরে বসে পড়েও অনেকে ভালো ফল করেছেন। সেই ভালো ফলের জন্য শীর্ষস্থান অধিকারী ২ শিক্ষার্থী পেলেন গাড়ি উপহার। এ ঘটনা ভারতের ঝাড়খন্ডে।

এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে, বোর্ড পরীক্ষায় সরকারি বিদ্যালয়ের শীর্ষস্থান অধিকার করায় দুই শিক্ষার্থীকে গাড়ি উপহার দিয়েছেন ঝাড়খন্ডের শিক্ষামন্ত্রী জগন্নাথ মাহাত। ঝাড়খন্ড একাডেমিক কাউন্সিল পরিচালিত দশম এবং দ্বাদশ শ্রেণির বোর্ড পরীক্ষায় প্রথম হওয়ায় দুই শিক্ষার্থীকে গাড়ি উপহার দেন তিনি। রাজ্যর রাজধানীর রাঁচিতে রাজ্য বিধানসভা প্রাঙ্গণে এ উপহার তুলে দেওয়া হয়।

রাজ্যর উচ্চশিক্ষা, রাজ্য শিক্ষা ও সাক্ষরতাবিষয়ক মন্ত্রী জগন্নাথ মাহাত মাধ্যমিকের ফলাফল ঘোষণার সময় রাজ্যে শীর্ষস্থান পাওয়া শিক্ষার্থীদের গাড়ি উপহার দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছিলেন। ১৮ সেপ্টেম্বর রাজ্যর ফল ঘোষণা করা হয়। ফলে দ্বাদশ শ্রেণির বোর্ড পরীক্ষায় বিজ্ঞান বিভাগে রাজ্য শীর্ষস্থান দখল করে অমিত কুমার। অমিত কুমার ৫০০ নম্বরের মধ্যে ৪৫৭ নম্বর (৯১.৪ শতাংশ) পেয়েছেন। একইভাবে নেতারহাট আবাসিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মনীষ কুমার কটিয়ার দশম শ্রেণির বোর্ড পরীক্ষায় শীর্ষস্থান অধিকার করে। মনীষ কাটিয়ার ৫০০ নম্বরের মধ্যে ৪৯০ (৯৮ শতাংশ) নম্বর পেয়েছে।

শিক্ষামন্ত্রী এবং ঝাড়খন্ড বিধানসভার স্পিকার রবীন্দ্রনাথ মাহাতো গাড়ির চাবিগুলো অমিত কুমার ও মনীষ কুমারের হাতে তুলে দেন। এ সময় শিক্ষামন্ত্রী জগন্নাথ মাহাতো বলেন, পরের বছর থেকে যারা ফলাফলে শীর্ষস্থানে থাকবেন, তাঁদের উচ্চশিক্ষার সব ব্যয় বহন করা হবে। এ ব্যয় মন্ত্রীর নিজস্ব তহবিল থেকে হবে।

অমিত কুমার বলেন, যা কখনো ভাবিনি, তা–ই হলো। আমি উপহার পেয়ে খুব খুশি। শিক্ষামন্ত্রীর এই কাজ অনেক শিক্ষার্থীকে উৎসাহিত করবে।

মনীষ কটিয়ার জানায়, ‘এটি একটি অনন্য অনুভূতি। আমি ভাষায় প্রকাশ করতে পারছি না। উপহারটি আমাকে আরও শিক্ষার জন্য কঠোর পরিশ্রম করতে উত্সাহিত করবে।’

শিক্ষার্থীদের অভিনন্দন জানিয়ে ঝাড়খন্ডের স্পিকার বলেন, ‘আপনারা চিকিৎসক, প্রকৌশলী, বিজ্ঞানী বা যেকোনো কিছু হতে পারেন। তবে সব সময় নৈতিকতা ও নৈতিক মূল্যবোধ অনুসরণ করে চলবেন। আমি শিক্ষকদের কাছে নৈতিক মূল্যবোধকে শিক্ষার্থীদের মধ্যে ছড়িয়ে দেওয়ার আহ্বান জানাই। হেঁটে স্কুলে যাওয়া শিক্ষার্থীরা বা একটি সাইকেলে চড়ে ক্লাসে যাওয়া শিক্ষার্থীরা গাড়িতে চড়ে ক্লাসে যাবেন। আমি আশা করি তাঁরা তাঁদের লক্ষ্য এভাবে দ্রুত অর্জন করে ফেলবেন। পুরস্কার হিসেবে গাড়ি পাওয়ার ঘটনা ভবিষ্যতে অন্য শিক্ষার্থীদের উত্সাহিত করবে।’

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0