বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য আবদুল হামিদের আদেশক্রমে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, ‘১৯৭৩–এর (সংশোধিত আইন, ১৯৯৯) এর ১৩(১) ধারা অনুসারে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূতত্ত্ব ও খনিবিদ্যা বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ড. মো. সুলতান-উল-ইসলামকে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ-উপাচার্য পদে নিয়োগ প্রদান করা হলো।’

প্রজ্ঞাপনে আরও বলা হয়েছে, ‘উপ-উপাচার্য হিসেবে তাঁর নিয়োগের মেয়াদকাল হবে চার বছর। তবে প্রযোজ্য ক্ষেত্রে তিনি নিয়মিত চাকরির বয়স পূর্তিতে মূল পদে প্রত্যাবর্তনপূর্বক অবসর গ্রহণের আনুষ্ঠানিকতা সম্পাদন শেষে উক্ত মেয়াদের অবশিষ্টাংশ পূর্ণ করবেন। সহ-উপাচার্য পদে তিনি তাঁর বর্তমান পদের সমপরিমাণ বেতন–ভাতা পাবেন। তিনি বিধি অনুযায়ী পদসংশ্লিষ্ট অন্যান্য সুযোগ–সুবিধা ভোগ করবেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের সংবিধি ও আইন দ্বারা নির্ধারিত দায়িত্ব পালন করবেন। তাঁর নিয়োগ কার্যকর হবে ১৭ জুলাই থেকে। রাষ্ট্রপতি ও আচার্য প্রয়োজন মনে করলে যেকোনো সময় এ নিয়োগ বাতিল করতে পারবেন।’

সুলতান-উল-ইসলাম রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘দুর্নীতিবিরোধী শিক্ষক সমাজ’ ব্যানারে আন্দোলনকারীদের আহ্বায়ক ছিলেন। বিদায়ী উপাচার্য আবদুস সোবহানসহ তাঁর প্রশাসনের বিরুদ্ধে দুর্নীতি বিষয়ে বেশ তৎপর ছিলেন।

সুলতান-উল-ইসলাম প্রথম আলোকে বলেন, তাঁকে একটি গুরুদায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। তিনি তা যথাযথভাবে পালনের চেষ্টা করবেন। ১৭ জুলাই তিনি যোগ দেবেন।

উচ্চশিক্ষা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন