default-image

লকডাউনের সারা বিশ্বের মানুষের জীবন প্রায় স্থবির হয়েছিল। ঘরে বসে থাকতে হয়েছে মানুষকে। তবে এই স্থবির সময়কেও কেউ কেউ কাজে লাগিয়েছেন। অখণ্ড অবসরের ‘সর্বোচ্চ’ ব্যবহার করে অর্জন করেছেন সার্টিফিকেট। একটু দুটি নয় ৩১৭ টি অনলাইন সার্টিফিকেট অর্জন করেছেন। টাইমস অব ইন্ডিয়া জানিয়েছে, ৩১৭ সার্টিফিকেট পাওয়ার আগে তিনি পিএইচডি করেছেন। তার নাম সুধন্যা নাথ।

লকডাউনের দিনগুলোতে সময়ের সর্বোচ্চ ব্যবহার করা সুধন্যা নাথ বাংলাদেশ, শ্রীলঙ্কা, নেপাল এবং পাকিস্তানে থেকে বিভিন্ন কোর্স করে এ সনদগুলো পেয়েছেন। কোর্সের পাশাপাশি তিনি ক্রিয়েটিভ রাইটিং এবং ভিডিওর কয়েকটি প্রতিযোগিতায় বিজয়ী হয়েছেন।

সুধন্যা নাথ বলেন, ‘লকডাউনের দিনগুলোতে বাড়িতে থাকার সময় কিছু অনলাইন কোর্সে অংশ নেই। সবগুলো কোর্স ছিল আমার বিষয়-ভিত্তিক: অ্যানিমেল নিউট্রিশন, অ্যানিমেল ভিটামিন সম্পর্কিত। এরপর অন্য বিষয়ের ওয়েব সেমিনারেও অংশ নেই। এতে অনেক নতুন কিছু জানতে পেরেছি।’

বিজ্ঞাপন

২৫ বছর বয়সী তরুণী সুধন্যা নাথের অল্প বয়স থেকেই নানা বিষয়ের প্রতি ঝোঁক ছিল। সেই অভ্যাসটা তিনি এখনো ধরে রেখেছেন, ‘অনেক শখর বিষয়ে অভিজ্ঞতা অর্জন করতে চাইলেও সময়ের অভাবে পারিনি। কিন্তু লকডাউন আমাকে সেই সুযোগ করে দিয়েছে। আসলে এর সঙ্গে ছিল প্রযুক্তির আশীর্বাদ। আমি শুধু সার্টিফিকেটের জন্য বসে থাকিনি। নিজেকে ব্যস্ত রাখতে অনেক কুইজ খেলেছি, বই পড়েছি। লেখালেখি করেছি।’

কলকাতার ওয়েস্ট বেঙ্গল কলেজ অব অ্যানিমেল অ্যান্ড ফিশারি সায়েন্সেস পড়াশোনা করা সুধন্যা নাথ কোভিড-১৯ নিয়ে লেখালেখির প্রতিযোগিতা, ভিডিওর প্রতিযোগিতাও অংশ নিয়ে কৃতিত্বের স্বাক্ষর রেখেছেন। আসলে সার্টিফিকেটের আসায় আমি অনলাইন কোর্সে অংশ নেয়নি সময়টিকে কাজে লাগাতে চেয়েছি মাত্র।

মন্তব্য পড়ুন 0