স্কুলে তাঁবুতে বসে ক্লাস করছে ইরানের খুদে শিক্ষার্থীরা

  • করোনায় সাত মাস পর খুলেছে ইরানের স্কুল

  • ক্লাসে প্রতি শিক্ষার্থীর জন্য আলাদা তাঁবু আছে

  • তাঁবুর ভেতরে মাস্ক ছাড়াই ক্লাস করছে ছাত্রছাত্রী

বিজ্ঞাপন
default-image

কোভিড-১৯–এর কারণে খুদে শিক্ষার্থীদের স্কুলে যাওয়া অনেক দিন ধরেই বন্ধ। কোনো কোনো দেশে অনলাইনে শিক্ষা কার্যক্রম চলছে। আবার কোনো কোনো দেশ স্কুল খোলার পর করোনা সংক্রমণের কারণে বন্ধও করে দিয়েছে। কিন্তু স্কুলে ক্লাস করার ক্ষেত্রে ইরান অভিনব ও অদ্ভুত উদ্যোগ নিয়েছে। যদিও ইরানের উদ্যোগ নিয়ে আলোচনা–সমালোচনা হচ্ছে।


করোনার কারণে প্রায় সাত মাস ধরে বন্ধ ছিল ইরানের স্কুলগুলো। নিউ নরমাল জীবনে ৫ সেপ্টেম্বর থেকে স্কুল খোলা হয়েছে। এর মধ্য দিয়ে দেশটির দেড় কোটি শিক্ষার্থী আবার ক্লাসে ফিরেছে।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ইরানে অভিনব পন্থায় শিশুদের ক্লাস করানো হচ্ছে। ক্লাসরুমে প্রত্যেক শিশুকে আলাদা তাঁবু দেওয়া হয়েছে। ক্লাসরুমের মেঝেতেই পাতা হয়েছে তাঁবু। তাঁবুর চারদিক স্বচ্ছ প্লাস্টিক দিয়ে ঘেরা। এর মধ্যে বসে ক্লাস করছে শিশুরা। মাস্ক ছাড়া তাঁবুতে বসে শিক্ষকদের কথা শুনছেন শিক্ষার্থীরা। টুইটারে ছবিটি শেয়ার করেছেন ফারনাজ ফসিহি নামের একজন সাংবাদিক। রাজধানী তেহরানের স্কুলের এমন একটি ছবি সম্প্রতি ভাইরাল হয়েছে। বিভিন্ন গণমাধ্যম তাঁবুতে বসে ক্লাস করা নিয়ে সংবাদও প্রকাশ করেছে।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
শিক্ষা কার্যক্রম ও স্বাস্থ্যের ব্যাপারটি সমান গুরুত্ব দেওয়া হবে।এ বছর আমরা শিক্ষার্থীদের কাঁধে দায়বদ্ধতার এক বোঝা চাপিয়ে দিয়েছি।
হাসান রুহানি ,ইরানের প্রেসিডেট
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ভার্চ্যুয়াল ক্লাসে মাসের পর মাস কাটিয়ে দিচ্ছে শিক্ষার্থীরা। নতুন প্রজন্মের অনেকে অভ্যস্ত হয়ে গেছে এভাবে। যদিও বিশ্বের অনেক দেশে ভার্চ্যুয়াল ক্লাসের অবকাঠামো বা সুবিধা নেই। ইরানের ওই ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়তেই নানা প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে। অভিনব এ উপায়ের কেউ কেউ প্রশংসা করেছেন। আবার শিশুদের মুখে মাস্ক না থাকায় তাদের নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্নও তুলেছেন অনেকেই। কেউ কেউ বলছেন, করোনায় নয়, এই শিশুরা শ্বাসপ্রশ্বাসজনিত সমস্যায় পড়বে। ঘাটতি হবে অক্সিজেনের।


ইরানের প্রেসিডেট হাসান রুহানি টেলিভিশনে সরাসরি ভিডিও কনফারেন্সে বিদ্যালয়গুলো পুনরায় চালু ও তদারকি করার কথা জানান। তিনি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পুনরায় চালু করার সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে বলেন, শিক্ষা কার্যক্রম ও স্বাস্থ্যের ব্যাপারটি সমান গুরুত্ব দেওয়া হবে। তিনি বলেন, ‘এ বছর আমরা শিক্ষার্থীদের কাঁধে দায়বদ্ধতার এক বোঝা চাপিয়ে দিয়েছি।’


মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোর মধ্যে ইরানে সবচেয়ে বেশি করোনা সংক্রমিত হয়েছে। ৩ লাখ ৮৪ হাজারের বেশি মানুষের করোনভাইরাস শনাক্ত হয়েছে।

তথ্যসূত্র: রয়টার্স

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন