default-image

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সদ্য সাবেক উপাচার্য হারুন-অর-রশিদ জার্মানির হাইডেলবার্গ ইউনিভার্সিটির ‘বাংলাদেশ চেয়ার’–এর (বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান প্রফেসরিয়াল ফেলোশিপ) জন্য নির্বাচিত হয়েছেন। এর মাধ্যমে দেড় যুগের বেশি সময় পর জার্মানির হাইডেলবার্গ বিশ্ববিদ্যালয়ে আবার ‘বাংলাদেশ চেয়ার’ চালু হলো।

আজ বুধবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় মিট দ্য প্রেসে এ তথ্য প্রকাশ করেছে বলে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে অধ্যাপক হারুন ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান প্রফেসরিয়াল ফেলোশিপ’ পেলেন। মিট দ্য প্রেসে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন, ইউজিসির চেয়ারম্যান কাজী শহীদুল্লাহ, পররাষ্ট্রসচিব মাসুদ বিন মোমেন, হারুন-অর–রশিদ, বাংলাদেশে নিযুক্ত জার্মান রাষ্ট্রদূত পিটার ফারেন হোল্টজ, জার্মানিতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোশররফ হোসেন ভূঁইয়া প্রমুখ অনুষ্ঠানে যুক্ত ছিলেন।

জার্মানির হাইডেলবার্গ বিশ্ববিদ্যালয় দেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর অধ্যাপকদের কাছ থেকে এ বিষয়ে আবেদন গ্রহণের জন্য প্রকাশ করে। ২২ মার্চ ইউজিসি ও হাইডেলবার্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিনিধিরা ‘বাংলাদেশ চেয়ার’ নির্বাচন বিষয়ে অনলাইন প্ল্যাটফর্মে একটি সভা করেন। আলোচনা শেষে ইউজিসি তিনজনের সংক্ষিপ্ত তালিকা থেকে অধ্যাপক হারুনকে নির্বাচিত করে।

বিজ্ঞাপন

‘বাংলাদেশ চেয়ার’–এর আওতায় অধ্যাপক হারুন হাইডেলবার্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের দক্ষিণ এশিয়া ইনস্টিটিউটে যোগ দেবেন। তিনি চলতি বছরের এপ্রিল থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত (সামার সেমিস্টার) কার্যক্রম পরিচালনা করবেন। ছাত্রছাত্রীদের তিনি প্রতি সপ্তাহে একটি ক্লাস নেবেন। তাঁর লেকচারে বঙ্গবন্ধুর অসামান্য নেতৃত্ব, কর্ম ও আদর্শ শিক্ষার্থীদের সামনে উপস্থাপন করবেন।

এ ছাড়া ফেলোশিপের আওতায় অধ্যাপক হারুন ‘বাংলাদেশ লেকচারস’ নামে দুটি পাবলিক লেকচার দেবেন। সেখানকার বিভাগীয় সভা, সেমিনার, সম্মেলনে অংশ নেবেন। একই সঙ্গে তিনি গবেষণা কার্যক্রমে অংশ নেবেন। জার্মান সহকর্মীদের সঙ্গে পরামর্শক্রমে শিক্ষণের নতুন উদ্যোগ ও উদ্ভাবনেও কাজ করবেন।

১৯৯৯ সালে হাইডেলবার্গ বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘বাংলাদেশ চেয়ার’ (বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান প্রফেসরিয়াল ফেলোশিপ) স্থাপন করা হয়। চালু হওয়ার প্রথম দুই বছরে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে শিক্ষকেরা এ ফেলোশিপের আওতায় যোগ দেন।

উচ্চশিক্ষা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন