default-image

প্রথমবারের মতো গুচ্ছ ভিত্তিতে অনুষ্ঠেয় দেশের ২০টি সাধারণ এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষার জন্য প্রাথমিক আবেদন নেওয়া শুরু হবে আগামী ১ এপ্রিল থেকে। চলবে ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত। আর মানবিক, বিজ্ঞান ও বাণিজ্য—এই তিন বিভাগের পরীক্ষা হবে তিন দিনে।

প্রাথমিক সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ১৯ জুন, ২৬ জুন এবং ৩ অথবা ১০ জুলাই পরীক্ষাগুলো হবে। তবে কোন বিভাগের পরীক্ষা কোন দিনে হবে, তা অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে সমন্বয় করে ঠিক করা হবে।  
২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক (সম্মান) প্রথম বর্ষে ভর্তি নিয়ে আজ সোমবার জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে গুচ্ছে থাকা বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর এক সভায় এই সিদ্ধান্ত হয়। পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ, তথ্য ও প্রকাশনা দপ্তর এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানায়।

সভায় সিদ্ধান্ত হয়, যেসব শিক্ষার্থীর ন্যূনতম যোগ্যতা থাকবে, তাঁরা সবাই প্রাথমিক আবেদন করতে পারবেন। এ জন্য কোনো ফি দিতে হবে না। প্রাথমিক আবেদনকারী শিক্ষার্থীদের মধ্য থেকে মেধার ভিত্তিতে ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য যোগ্য প্রার্থীদের তালিকা করা হবে। ২৩ এপ্রিল খুদে বার্তার মাধ্যমে তা জানিয়ে দেওয়া হবে। এরপর পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার জন্য নির্বাচিত প্রার্থীদের চূড়ান্ত আবেদনের সুযোগ দেওয়া হবে।

বিজ্ঞাপন

একজন উপাচার্য জানালেন, বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে এক দিনে প্রায় আড়াই লাখ শিক্ষার্থীর পরীক্ষা নেওয়ার সুযোগ আছে। তবে তাঁরা সর্বোচ্চসংখ্যক শিক্ষার্থীকে পরীক্ষায় অংশগ্রহণের সুযোগ দেওয়ার চেষ্টা করছেন।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, প্রাথমিকভাবে বাছাই করা শিক্ষার্থীরা মোবাইল ব্যাংকিং সেবার মাধ্যমে ৫০০ টাকা জমা দিয়ে ২৪ এপ্রিল হতে ২০ মের মধ্যে ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার জন্য চূড়ান্ত আবেদন করতে পারবেন। সব পরীক্ষা নির্ধারিত কেন্দ্রে একযোগে দুপুর ১২টায় শুরু হবে। একজন শিক্ষার্থী কমপক্ষে পাঁচটি পরীক্ষা কেন্দ্র পছন্দক্রম দিতে পারবেন।

আজকের সভায় সভাপতিত্ব করেন ভর্তি কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক ও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য মীজানুর রহমান। সভায় গুচ্ছে থাকা বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর উপাচার্য ও তাঁদের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

উচ্চশিক্ষা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন