default-image

নতুন সেমিস্টারে ৩০ শতাংশ টিউশন ফি মওকুফ ও স্টুডেন্ট অ্যাকটিভিটি ফি প্রত্যাহারের দাবিতে আন্দোলন করছেন নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। রোববার তাঁরা বসুন্ধরায় বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের সব ফটক বন্ধ করে দেন। আজ সোমবার সকাল ১০টা থেকে আবারও ক্যাম্পাসে জড়ো হওয়ার কথা রয়েছে বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীদের।

একজন শিক্ষার্থী প্রথম আলোকে বলেন, করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে গত সেমিস্টারে ২০ শতাংশ টিউশন ফি মওকুফ করেছিল বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। কিন্তু এবার টিউশন ফি মওকুফ করতে চাইছে না তারা। এর সঙ্গে যুক্ত হয়েছে স্টুডেন্ট অ্যাকটিভিটি ফি।

ক্যাম্পাসে ব্যায়ামাগার, কম্পিউটার ল্যাব, লাইব্রেরিসহ অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা ভোগ করতে হলে এই স্টুডেন্ট অ্যাকটিভিটি ফি দিতে হয়। বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস এখন বন্ধ। তারপরও এ টাকা কেন দিতে হবে, বুঝে উঠতে পারছেন না তাঁরা।

বিজ্ঞাপন

বেলা ১১টার দিকে তাঁরা প্রথমে আন্দোলন শুরু করেন। পরে তাঁদের মধ্য থেকে পাঁচজনকে ডেকে নিয়ে যায় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। বলা হয়, ২২ অক্টোবর এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত দেওয়া হবে। শিক্ষার্থীরা বলছেন, ২২ অক্টোবর থেকে তাঁদের ক্লাস শুরু হবে।

তাঁদের দ্রুত সিদ্ধান্ত জানা প্রয়োজন। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত এ ব্যাপারে কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি।

এ বিষয়ে জানতে উপাচার্য মো. আতিকুল ইসলামের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তিনি ফোন ধরেননি।

মন্তব্য পড়ুন 0