default-image

সাশ্রয়ী স্মার্টফোনের ব্র্যান্ড ‘অনর’ ইউনিট বিক্রি করে দেওয়ার পরিকল্পনা করছে চীনা প্রযুক্তিপণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়ে। ১ হাজার ৫২০ কোটি মার্কিন ডলারে এই ইউনিট কিনছে হ্যান্ডসেট সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান ডিজিটাল চায়নার নেতৃত্বাধীন একটি কনসোর্টিয়াম। এতে কনসোর্টিয়ামে যুক্ত রয়েছে শেনঝেনের সরকার। এর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সূত্র বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে এ তথ্য জানিয়েছে।

হুয়াওয়ে যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞার মুখে পড়ে বিশ্বের শীর্ষ স্মার্টফোন নির্মাতার স্থান হারিয়েছে স্যামসাংয়ের কাছে। এখন তারা কেবল হাইএন্ডের স্মার্টফোন ও করপোরেট ব্যবসার দিকে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছে। এ ছাড়া যুক্তরাষ্ট্র সরকারের কাছ থেকে দ্রুত কোনো পরিবর্তন আশা করছে না তারা।

বিজ্ঞাপন

ট্রাম্প প্রশাসন হুয়াওয়েকে জাতীয় নিরাপত্তার জন্য হুমকি হিসেবে অভিযোগ তুলেছে।
অনর বিক্রি হচ্ছে পুরোপুরি নগদ অর্থেই। চুক্তির আওতায় অনর ব্র্যান্ড, গবেষণা ও উন্নয়ন, সাপ্লাই চেইন ব্যবস্থাপনাসহ সবকিছুই বিক্রি হয়ে যাবে। শিগগির হুয়াওয়ে এর ঘোষণা দিতে পারে।

রয়টার্স জানিয়েছে, অনর ব্র্যান্ডের মূল সরবরাহকারী হিসেবে অনর টার্মিনাল কোম্পানি লিমিটেডের শীর্ষ শেয়ার ধরে রাখবে ডিজিটাল চায়না। অনর টার্মিনাল পুরোপুরি হুয়াওয়ের নিয়ন্ত্রণে ছিল।

ডিজিটাল চায়না হুয়াওয়ের ক্লাউড কম্পিউটিং ব্যবসারও অংশীদার।

বিক্রি হয়ে গেলেও অনর তার কর্মীদের ধরে রাখবে। প্রতিষ্ঠানটিতে প্রায় ৭ হাজার কর্মী রয়েছেন। তিন বছরের মধ্যে এটি শেয়ারবাজারে নেওয়ার পরিকল্পনাও রয়েছে ডিজিটাল চায়নার।

গত বছরে যুক্তরাষ্ট্রে কালো তালিকাভুক্ত হওয়ার পর কোনো মার্কিন কোম্পানি হুয়াওয়ের সঙ্গে ব্যবসা করতে পারছে না। হুয়াওয়ে নিজেদের নিরাপত্তাঝুঁকির বিষয়টি বারবার অস্বীকার করেছে। গত মে মাসে হুয়াওয়ের চিপ তৈরিতে ব্যবহৃত মার্কিন প্রযুক্তি রপ্তানিতে নিষেধাজ্ঞা দেয় ট্রাম্প প্রশাসন।

২০১৩ সালে অনর ব্র্যান্ড প্রতিষ্ঠা করে হুয়াওয়ে। কিন্তু এ ব্যবসা অনেকটাই স্বাধীনভাবে পরিচালিত হয়। পৃথক কোম্পানি হওয়ায় অনর মার্কিন নিষেধাজ্ঞার মুখে পড়বে না। অনর নিজস্ব ওয়েবসাইটের মাধ্যমে স্মার্টফোন বিক্রি করে থাকে। বাজারে শাওমি, অপো ও ভিভোর সঙ্গে প্রতিযোগিতা রয়েছে অনরের।

মন্তব্য পড়ুন 0