default-image

বহুল প্রতীক্ষিত আইফোন ১২ সিরিজ উদ্বোধন করেছে অ্যাপল। এতে রয়েছে আইফোন ১২ মিনি, আইফোন ১২, আইফোন ১২ প্রো ও আইফোন ১২ প্রো ম্যাক্স। সব কটি মডেলেই ফাইভ-জি নেটওয়ার্ক সমর্থনের সুবিধা যুক্ত করেছে অ্যাপল। কিন্তু এই ফাইভ-জি নেটওয়ার্কের সুবিধা নিয়েই অ্যাপলকে খোঁচা দিয়েছে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রতিষ্ঠান স্যামসাং।

মাইক্রোব্লগিং সাইট টুইটারে অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমনির্ভর ফোন নির্মাতা স্যামসাং একটি পোস্ট দিয়েছে। তাতে স্যামসাং লিখেছে, কিছু মানুষ এখন দ্রুতগতিকে স্বাগত জানাচ্ছে। আমাদের কাছে তা বেশ আগে থেকেই রয়েছে। আপনারা গ্যালাক্সি ফাইভ-জি ডিভাইস সংগ্রহ করুন।

বিজ্ঞাপন

স্যামসাংয়ের এ পোস্ট অ্যাপলের ফাইভ-জি ফোন চালুর বিষয়টি খোঁচা দিয়ে করা। অ্যাপল ফাইভ-জি ডিভাইসের ক্ষেত্রে নতুন।

যুক্তরাষ্ট্রের স্যামসাং মোবাইল টুইটার অফিশিয়াল অ্যাকাউন্ট থেকে টুইটটি করা হয়।

অ্যাপল তাদের নতুন স্মার্টফোনের প্রচারের ক্ষেত্রে গতিকেই প্রধান ফিচার হিসেবে তুলে ধরছে। ১৩ অক্টোবরের অনুষ্ঠানে আগে আমন্ত্রণপত্রে লিখেছিল ‘হাই, স্পিড’।

অনুষ্ঠানেও অ্যাপলের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়, আইফোনে যে ফাইভ-জি সংযোগ পাওয়া যাবে, তা দ্রুতগতিসম্পন্ন হবে।

বিজ্ঞাপন

আইফোন ১২ সিরিজের মাধ্যমে ফাইভ-জি প্রযুক্তিতে প্রবেশ করলেও অ্যাপলের প্রতিদ্বন্দ্বী স্যামসাং ২০১৯ সালে তাদের এস১০ মডেলের ফোনে এ সুবিধা যুক্ত করে।

স্যামসাংয়ের এ বছর বাজারে আনা ফ্ল্যাগশিপ ফোন গ্যালাক্সি নোট ২০ আলট্রা, এস২০ আলট্রা ও এস২০ এফই সংস্করণে ফাইভ-জি সুবিধা রয়েছে।

অবশ্য ফাইভ-জি স্মার্টফোনের বাজারে শুধু অ্যাপল আর স্যামসাংই নেই; এর পাশাপাশি ওয়ানপ্লাস, ভিভো, রিয়েলমি ও শাওমির পোর্টফোলিওতে ফাইভ-জি স্মার্টফোন রয়েছে।

মন্তব্য পড়ুন 0