default-image

আপওয়ার্ক অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে প্রথমে আপনার নিজের সম্পর্কে নির্ভুল তথ্য দিন পাসপোর্ট বা ন্যাশনাল আইডি কার্ডের তথ্য অনুযায়ী। নিজের স্পষ্ট ছবি ব্যবহার করুন, মুখমণ্ডল যেন পরিষ্কারভাবে দেখা যায়। ব্যক্তিগত ওয়েবসাইট বা তৃতীয় পক্ষের প্রোফাইলের কোনো লিংক আপনার প্রোফাইলে যুক্ত করবেন না। এটা আপওয়ার্কের নিয়মনীতিকে সমর্থন করে না।

আপওয়ার্কে আপনার অ্যাকাউন্ট তৈরির সময় সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হলো প্রোফাইল ওভার ভিউ। এর কোনো ধরাবাঁধা নিয়ম নেই। ভালো ইংরেজি জানলে আপনি অবশ্যই পারবেন। যে বিষয়গুলো মাথায় রাখতে হবে:

১. আপনার কোনো ভালো কাজের বিবরণ, কাজের ধরন ইত্যাদি যুক্ত করুন। অর্থাৎ কোন কাজে আপনার ভূমিকা কী, তা গুছিয়ে লিখে দিন।

২. আপনি কাজের বিভাগগুলো এমনভাবে নির্বাচন করুন যেন আপওয়ার্ক ও ক্লায়েন্ট ইন্টারভিউতে জিজ্ঞাসা করার সঙ্গে সঙ্গে উত্তর দিতে পারেন। এমন কিছু নির্বাচন করবেন না, যে বিভাগের কাজ আপনি জানেন না।

৩. যদি আপনার কোনো সনদ থাকে, যেটা আপওয়ার্ক সমর্থন করে, তবে এটা প্রোফাইলে যুক্ত করে দিন। এই সনদ আপনার প্রোফাইলের মান বাড়াবে।

৪. প্রোফাইলে আপনার সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম বা অন্য মার্কেটপ্লেসের প্রোফাইলগুলোর ঠিকানা যোগ করে দিতে পারেন। যেমন: টুইটার, বিহ্যান্স, গিটহাব, স্টাকওভারফ্লো, ড্রিবল ইত্যাদি। আমি সবচেয়ে বেশি প্রাধান্য দিই বিহ্যান্স ও টু্ইটারকে।

৫. আপনার সম্পর্কে বা কাজের ধরন সম্পর্কে এক মিনিটের ভিডিও তৈরি করুন। এটা আপনার প্রোফাইলে অতিরিক্ত ভ্যালু যোগ করবে এবং নিশ্চিত হয়ে নিন যে আপনি ভালো মানের ভিডিও করছেন আর আপনার কথা বলার ধরন ও আপনার উচ্চারণ ভালো হচ্ছে।

ওপরের তথ্যগুলো দিয়ে অ্যাকাউন্ট তৈরি হয়ে গেলে সাবমিট করুন এবং আপওয়ার্কের অনুমোদনের জন্য অপেক্ষা করতে থাকুন। আশা করি, আপনি যদি এসব তথ্য নিখুঁতভাবে দিয়ে থাকেন, তবে আপওয়ার্ক আপনার প্রোফাইল অনুমোদন করবে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন