default-image

ফেসবুকে ভুয়া খবর ছড়িয়ে পড়া ঠেকানোর ব্যবস্থা জোরদার করছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। ফেসবুকে শেয়ার করা খবর ভুয়া কি না, তা নির্ণয় করতে ফ্যাক্ট-চেকিং নামে একটি ব্যবস্থা নিয়েছে তারা। সম্প্রতি এ সুবিধাটি নতুন বেশ কয়েকটি দেশে চালু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ফেসবুক। আইএএনএসের এক খবরে এ তথ্য জানানো হয়।

ফেসবুকের ফ্যাক্ট-চেকিং কর্মসূচিটি বর্তমানে ১৪টি দেশে চালু আছে। এ বছরের শেষ নাগাদ আরও কয়েকটি দেশে চালু করার পরিকল্পনা নিয়েছে তারা।

বৃহস্পতিবার এক ব্লগ পোস্টে ফেসবুকের পণ্য ব্যবস্থাপক টেসা লায়ন্স লিখেছেন, ফেসবুকে স্বতন্ত্র সনদপ্রাপ্ত ফ্যাক্ট-চেকার সংস্থাগুলো সঠিক খবরকে রেটিং দিচ্ছে। এতে ভুয়া খবর ছড়ানো ৮০ শতাংশ ঠেকানো গেছে।

বর্তমানে বিভিন্ন দেশে ফ্যাক্ট-চেকিং প্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে চুক্তি করছে ফেসবুক। এসব সংস্থাগুলো আন্তর্জাতিক ফ্যাক্ট-চেকিং নেটওয়ার্কের সঙ্গে যুক্ত। ভারতে বুম নামের একটি প্রতিষ্ঠান এ দায়িত্ব পালন করছে। বাংলাদেশ এখনো এ তালিকায় নেই। তবে নতুন দেশের তালিকায় বাংলাদেশের নাম আসবে কি না, তা এখনো জানায়নি ফেসবুক কর্তৃপক্ষ।

ফেসবুক জানিয়েছে, ফেসবুক নেটওয়ার্কে শেয়ার করা ছবি ও ভিডিও ভুয়া কি না, তা পরীক্ষা করতে চারটি দেশে ফ্যাক্ট-চেকিং কর্মসূচি চালু করা হচ্ছে। এসব কাজে ফেসবুকের মেশিন লার্নিং প্রযুক্তি সহযোগিতা করছে।

এক দেশ থেকে অন্য দেশে হোক্স বা ভুয়া খবর ছড়িয়ে প্রভাব খাটানোর বিষয়টি শনাক্ত করতে মেশিন লার্নিং ব্যবহার করা হবে। এর বাইরে ফ্যাক্ট-চেকিং সহযোগীদের সঙ্গে কাজ করার কথা বলেছেন লায়ন্স।

বিজ্ঞাপন
প্রযুক্তি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন