ইনোভেটর্সের চতুর্থ আসরের নিবন্ধন শুরু

বিজ্ঞাপন
default-image

উদ্ভাবনী তরুণদের জন্য ডিজিটাল ব্যবসায়িক পরিকল্পনার প্রতিযোগিতা বাংলালিংক ইনোভেটর্সের চতুর্থ আসরের নিবন্ধনপ্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। আজ রোববার বাংলালিংকের এক এক ভার্চ্যুয়াল সংবাদ সম্মেলনে এ ঘোষণা দেওয়া হয়।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, ইনোভেটর্স নামের এ আয়োজনে উদ্ভাবনী তরুণ প্রতিযোগীদের বাছাই করে গ্রুমিং, বুট ক্যাম্প সেশন, ওয়ার্কশপ ও অন্য আরও কার্যক্রমের মাধ্যমে তাঁদের দক্ষতা বৃদ্ধিতে সাহায্য করবে মোবাইল অপারেটর বাংলালিংক।

প্রতিযোগিতা শেষে সুনিয়ন্ত্রিত প্রক্রিয়ার মাধ্যমে নির্বাচিত চার সদস্যবিশিষ্ট বিজয়ী দলের নাম ঘোষণা করা হবে।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বিজয়ী দল বাংলালিংকের ‘স্ট্র্যাটেজিক অ্যাসিস্ট্যান্ট প্রোগ্রাম’-এর ‘অ্যাসেসমেন্ট সেন্টার’-এ যোগদানের সুযোগের পাশাপাশি পাবে বিশেষ পুরস্কার।

প্রথম ও দ্বিতীয় রানার্সআপ দলকেও এই প্রোগ্রামে যোগদানের সুযোগসহ পুরস্কৃত করা হবে। সেরা পাঁচ দলের প্রত্যেক সদস্য বাংলালিংকের ‘অ্যাডভান্সড ইন্টার্নশিপ প্রোগ্রামে (এআইপি)’ সরাসরি যোগদান করার পাশাপাশি লার্ন ফ্রম স্ট্রার্টআপস ও ক্যাম্পাস টু করপোরেট প্রোগ্রামসে অংশগ্রহণ করতে পারবেন।

ইউজিসি অনুমোদিত যেকোনো বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা সাইটে গিয়ে নিবন্ধনের মাধ্যমে প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করতে পারবেন। নিবন্ধনের শেষ তারিখ ২৪ অক্টোবর।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

অনুষ্ঠানে বাংলালিংকের প্রধান মানবসম্পদ কর্মকর্তা মনজুলা মোরশেদ বলেন, ‘প্রযুক্তির মাধ্যমে তরুণদের ক্ষমতায়নের লক্ষ্য নিয়ে আমরা কয়েক বছর আগে বাংলালিংক ইনোভেটর্স শুরু করেছিলাম। পরপর চার বছর প্রতিযোগিতাটি আয়োজন করতে পেরে আমরা সত্যিই আনন্দিত। প্রতিভাবান তরুণেরা এর মাধ্যমে আবারও তাদের দক্ষতা প্রদর্শনের সুযোগ পাবে। আগের বছরগুলোয় যেসব প্রতিযোগী এতে অংশগ্রহণ করেছে, তাদের মধ্যে অনেকে বাংলালিংকে ইন্টার্নশিপ সম্পন্ন করেছে। কিছুসংখ্যক প্রতিযোগী ‘স্ট্র্যাটেজিক অ্যাসিস্ট্যান্ট প্রোগ্রাম”-এ যোগ দিয়ে আমাদের প্রতিষ্ঠানের অগ্রগতিতে অবদানও রাখছে।’

বাংলালিংকের তথ্য অনুযায়ী, ইনোভেটর্সের প্রথম তিনটি আসরে প্রায় ৪০ হাজার শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেন। ভার্চ্যুয়াল সংবাদ সম্মেলনে বাংলালিংকের বিভিন্ন বিভাগের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন