default-image

ইভ্যালির খাবার সরবরাহ সেবা ইভ্যালি ফুড এক্সপ্রেসে (ই-ফুড) যুক্ত হলো গ্লোরিয়া জিন্স কফিস এবং বিএফসি। জনপ্রিয় এই দুই ফুড চেইনের সকল খাবারই এখন থেকে ফরমাশ করা যাবে ই-ফুডের এক্সপ্রেস শপের মাধ্যমে।

আজ শনিবার (৪ জুলাই) এক বিজ্ঞপ্তিতে এ ঘোষণা দিয়েছে দেশের ই-কমার্স ভিত্তিক মার্কেটপ্লেস ইভ্যালি ডটকম ডট বিডি।
গ্লোরিয়া জিনস কফিস বাংলাদেশের তিনটি শাখা থেকে খাবারের ফরমাশ দিতে পারবেন গ্রাহকেরা। গুলশান এলাকার জন্য গুলশান-১ ও ২ শাখা এবং ধানমণ্ডি এলাকার জন্য ধানমণ্ডি শাখা থেকে ফরমাশ করা খাবার সরবরাহ করবে ইভ্যালি।

এ লক্ষ্যে অস্ট্রেলিয়া ভিত্তিক চেইনশপ গ্লোরিয়া জিনস কফিসের বাংলাদেশ ফ্রাঞ্চাইজি প্রতিষ্ঠান নাভানা ফুডসের সঙ্গে এক সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষর করেছে ইভ্যালি। চুক্তিপত্রে ইভ্যালির চেয়ারম্যান শামিমা নাসরিন এবং নাভানা ফুডস লিমিটেডের প্রধান ব্যবসা কর্মকর্তা এফ এম মুরশেদ এলাহী নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে স্বাক্ষর করেন।

অন্যদিকে, পুরো রাজধানী জুড়ে বিএফসির ১৭টি শাখার খাবার ভোজনরসিকদের কাছে পৌঁছে দেবে ইভ্যালি। এ লক্ষ্যে প্রতিষ্ঠান দুইটির মধ্যে স্বাক্ষরিত চুক্তিপত্রে নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে স্বাক্ষর করেন ইভ্যালির চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিন এবং বেস্ট ফ্রাইড চিকেন (বিএফসি) এর পরামর্শক আশরাফ উদ দৌলা।

ইভ্যালির চেয়ারম্যান ও নারী উদ্যোক্তা শামীমা নাসরিন বলেন, এই সময়ে সবার যত বেশি সম্ভব ঘরে থাকা উচিত। তবে ভোজনরসিক বাঙালিদের সপরিবারে খাওয়া–দাওয়ার করার সংস্কৃতি বিনোদনের একটি গুরুত্বপূর্ণ মাধ্যমও বটে। যথাযথ স্বাস্থ্য সুরক্ষার বিষয়টি নিশ্চিত করে 'কনট্যাক্ট লেস' উপায়ে গ্রাহকদের সেই সেবাটি দিতেই কাজ করছে ইভ্যালি। আমাদের সঙ্গে প্রতিষ্ঠান দুটি যুক্ত হওয়ার মাধ্যমে গ্রাহকদের কাছে খাবার পৌঁছানোর তালিকা আরও সমৃদ্ধ হলো।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0