default-image

বাংলাদেশের স্টার্টআপ খাতে বিশেষ অবদানের জন্য উদ্যোক্তা ফাহিম সালেহকে স্মরণ করলেন দেশের উদ্যোক্তারা। ১৪ জুলাই বাংলাদেশে রাইড শেয়ারিং প্ল্যাটফর্ম 'পাঠাও' সার্ভিসের সহপ্রতিষ্ঠাতা ফাহিম সালেহর (৩৩) টুকরা করা লাশ ম্যানহাটনের ইস্ট হাউস্টন স্ট্রিট ও সাফোক স্ট্রিটসংলগ্ন অভিজাত অ্যাপার্টমেন্ট থেকে উদ্ধার করে নিউইয়র্ক পুলিশ (এনওয়াইপিডি)। তরুণ এ উদ্যোক্তার স্মৃতিচারণা করতে গতকাল শনিবার ভেঞ্চার ক্যাপিটাল অ্যান্ড প্রাইভেট ইক্যুইটি অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ভিসিপিয়াব) এ ভার্চ্যুয়াল অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

ভেঞ্চার ক্যাপিটাল অ্যান্ড প্রাইভেট ইক্যুইটি অ্যাসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান শামীম আহসানের সঞ্চালনায় ভার্চ্যুয়াল এ অনুষ্ঠানে প্রধান আলোচক হিসেবে যুক্ত হন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ, শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী। অনুষ্ঠানে ফাহিম সালেহকে স্মরণ করেন দেশের বিভিন্ন স্টার্টআপের উদ্যোক্তারা।

অনুষ্ঠানে প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ বলেন, ‘তথ্যপ্রযুক্তি খাতের একজন মেধাবী তরুণ উদ্যোক্তাকে হারিয়েছি আমরা।’

শামীম আহসান বলেন, দেশে স্টার্টআপগুলোকে দেখার দৃষ্টিভঙ্গি পাল্টে দিয়েছিলেন তরুণ ফাহিম।

অ্যাঙ্করলেস বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠাতা রাহাত আহমেদ বলেন, সালেহ শুধু একজন উদ্যোক্তা নন, বাংলাদেশের টেক স্টার্টআপ কমিউনিটি তৈরিতে প্রেরণা দিয়েছেন।

পাঠাওয়ের প্রধান নির্বাহী হুসেন এম ইলিয়াস বলেন, ‘ফাহিম আমাদের মধ্যে সম্ভাবনা দেখেছিলেন। তাঁর মতো খুব কম স্বপ্নদর্শী মানুষের সঙ্গে দেখা হয়েছে। তিনি ছিলেন সত্যিকারের নির্মাতা।’

অনুষ্ঠানে ফাহিম সালেহর ৩৩ বছর বয়সে উদ্যোক্তা হয়ে ওঠার বিভিন্ন দিক তুলে ধরে কীভাবে পাঠাও, গোকাডাসহ উদ্ভাবনী স্টার্টআপ প্রতিষ্ঠা ও বিনিয়োগ করেন, সে বিষয়ে স্মৃতিচারণা করেন অন্য উদ্যোক্তারা।

বিজ্ঞাপন
প্রযুক্তি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন