default-image

ভাবুন তো বন্ধুর বাড়িতে যাবেন। বাড়ির ছাদ থেকে আপনার গাড়ি নিয়ে রওনা দিলেন এবং উড়তে উড়তে বন্ধুর বাড়ির ছাদে গিয়ে নামলেন। গাড়িতে আরাম করে বসে, নিজের কণ্ঠস্বর ব্যবহার করে সবকিছু নিয়ন্ত্রণ করলেন। যানজট বা অন্য কোনো ঝামেলায় পড়লেন না। এ শুধু এখন আর বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনি নয়। এমন উড়ুক্কু ক্যাডিলাক তৈরিতে কাজ করছে জেনারেল মোটরস।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের জেনারেল মোটরস কোম্পানি (জিএম) ভবিষ্যতের উড়ুক্কু গাড়ির ধারণা প্রদর্শন করেছে। গতকাল মঙ্গলবার জিএম তাদের এই উড়ুক্কু ক্যাডিলাক সম্পর্কে বলেছে, এটি স্বচালিত যান, যা খাড়া হয়ে ওপরের দিকে উঠতে ও নামতে পারে; বাতাসে ভেসে চলতে পারে।

জেনারেল মোটরসের এক জ্যেষ্ঠ নির্বাহী তাদের উড়ুক্কু যান সম্পর্কে বলেছেন, তাদের উড়ুক্কু ক্যাডিলাকের ধারণা ব্যক্তিগত পরিবহনের ক্ষেত্রে ভবিষ্যতের ভাবনা বদলে দেবে।

বিজ্ঞাপন

মাত্র একজন যাত্রী বহনে সক্ষম এ যান মূলত ভার্টিক্যাল টেক-অফ অ্যান্ড ল্যান্ডিং (ভিটিওএল) ড্রোন। এটি একটি বাড়ির ছাদ থেকে রওনা হয়ে আরেক বাড়ির ছাদে থামা যাবে। এটি ঘণ্টায় ৫৫ মাইল বেগে উড়তে সক্ষম হবে।

রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়, স্বয়ংক্রিয় গাড়িটি পুরোপুরি বৈদ্যুতিক, যাতে ৯০ কিলোওয়াটের মোটর, জেনারেল মোটরসের ব্যাটারি, হালকা–পাতলা কাঠামোর সঙ্গে চার জোড়া রোটর রয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রে কনজ্যুমার ইলেকট্রনিকস শো (সিইএস) উপলক্ষে উড়ুক্কু যানটির ধারণা প্রদর্শন করেছে জেনারেল মোটরস।

জেনারেল মোটরসের প্রধান নকশাবিদ মাইক সিমকো বলেন, তাদের ভিটিওএলটি শহরে উড়ুক্কু পরিবহনের ক্যাডিলাক হতে চলেছে। জেনারেল মোটরসের ভবিষ্যতের লক্ষ্য। শিগগিরই এ যান বাজারে ছাড়ার লক্ষ্যও রয়েছে তাদের।

এতে স্লাইড করা দরজা, প্যানারোমিক কাচের ছাদ, লাউঞ্জের মতো সিট, বায়োমেট্রিক সেন্সর, কণ্ঠস্বরের মাধ্যমে নিয়ন্ত্রণ ও অঙ্গভঙ্গি শনাক্ত করার প্রযুক্তিও থাকবে।
এর আগে টয়োটা মোটর, হুন্দাই মোটর, গিলি অটোমোবাইলের মতো প্রতিষ্ঠান এ ধরনের উড়ুক্কু গাড়ির ধারণা দেখিয়েছে।

মন্তব্য করুন