প্রায় সাড়ে ৮ লাখ টাকা খরচ করে পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিয়েছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের উত্তর হলিউডের বাসিন্দা অ্যারন অ্যাপস্টাইন। বিষয়বস্তু হলো, ইন্টারনেট সংযোগের ধীরগতির জন্য তিনি শান্তিমতো ভিডিও সেবা এবং অনলাইনে টিভি দেখতে পারছেন না। এরপর রীতিমতো তোলপাড় শুরু হয়ে যায়। সেকেন্ডে ৩ মেগাবিটের জায়গায় অ্যাপস্টাইন পান ৩০০ মেগাবিটের সংযোগ।
default-image

অ্যাপস্টাইনের বয়স এখন ৯০। এই দীর্ঘজীবনের ৬০ বছর ধরেই তিনি এটিঅ্যান্ডটির গ্রাহক। তাঁর মা-বাবাও তা-ই ছিলেন। অথচ সাম্প্রতিক বছরগুলোতে প্রতিষ্ঠানটির ‘লাইটনিং ফাস্ট’ ইন্টারনেট গতির বিজ্ঞাপন দেখে তাঁর হতাশা ছাড়া আর কিছু বাড়েনি। তিনি বারবার গ্রাহক সেবাকেন্দ্রে ফোন করেও কোনো সদুত্তর পাননি। অ্যাপস্টাইন বলেছেন, ‘পাঁচ বছর ধরে যে প্রশ্ন বারবার করে হতাশ হয়েছি তা হলো, তোমরা কেন আমাকে বেশি গতির ইন্টারনেট সংযোগ দিচ্ছ না?’

তাঁর ভাষায়, ‘মাঝেমধ্যে ইন্টারনেটের গতি এতই কম ছিল যে চলচ্চিত্র নয়, যেন স্লাইড শো দেখছি। আর তখনই মাথায় বুদ্ধিটা এল।’

দ্য ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল–এর নিউইয়র্ক সিটি সংস্করণে একটি বিজ্ঞাপন দেওয়ার পরিকল্পনা করলেন। তবে অমন প্রভাবশালী ও জনপ্রিয় পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দেওয়া মোটেই সস্তা কথা নয়। ফোন নম্বর, ই-মেইল ঠিকানা এবং খোলা চিঠিসহ সে বিজ্ঞাপনে ১০ হাজার ৯৯ ডলার খরচ হয়েছে অ্যাপস্টাইনের।

বিজ্ঞাপনে মার্কিন প্রতিষ্ঠান এটিঅ্যান্ডটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা জন টি স্ট্যাংকি বরাবর খোলা চিঠি লেখেন অ্যারন অ্যাপস্টাইন। চিঠিতে তিনি লেখেন, ‘ইলেকট্রনিক যোগাযোগে নিজেদের শীর্ষস্থানীয় বলে গর্ব করে এটিঅ্যান্ডটি। অথচ উত্তর হলিউডের বাসিন্দাদের জন্য এটিঅ্যান্ডটি এখন হতাশার নাম।’

বিজ্ঞাপন

সে বিজ্ঞাপন প্রকাশের পর অনেক মানুষ অ্যাপস্টাইনের সঙ্গে যোগাযোগ করে। কেউ কেউ ইন্টারনেটের গতি কীভাবে বাড়ানো যায়, সে পরামর্শ দিয়েছেন। অনেকে প্রতিদ্বন্দ্বীদের ইন্টারনেট সেবা গ্রহণের কথা বলেছেন।

স্ত্রী অ্যানার সঙ্গে ভিডিও স্ট্রিমিং সেবা ও অনলাইনে টিভি দেখার জন্য ইন্টারনেটে সংযোগ ব্যবহার করেন অ্যারন অ্যাপস্টাইন। প্রযুক্তি নিয়ে খুব বেশি জানেন না তিনি। অ্যাপস্টাইনকে বলা হয়েছিল, অনেকেই তাঁদের অভিযোগ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে জানান। আপনি তা না করে বিজ্ঞাপন দিতে গেলেন কেন? জবাবে তিনি বলেছিলেন, ‘সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে পোস্ট করে কীভাবে?’

তবে বিজ্ঞাপনের পদ্ধতিটি শেষমেশ কাজে দিল। এটিঅ্যান্ডটির কাছ থেকে কল পান অ্যাপস্টাইন। এমনকি প্রধান নির্বাহী জন স্ট্যাংকিও ব্যক্তিগতভাবে তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করেন বলে জানিয়েছে আর্সটেকনিকা ডটকম। অ্যাপস্টাইন বলেন, করপোরেশনগুলো সব সময় সাধারণ মানুষদের কথা শোনে না। তারা শোনে সংবাদমাধ্যমের কথা।

বিজ্ঞাপনটির ছবি তুলে অনেকেই টুইটারের মতো সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে শেয়ার করেছেন।

অ্যাপস্টাইনের বিজ্ঞাপন প্রকাশিত হয় ৩ ফেব্রুয়ারি। এর সপ্তাহখানেকের মধ্যে বিদ্যমান প্রযুক্তি বদলে যুক্তরাষ্ট্রের উত্তর হলিউডে ফাইবার সার্ভিস চালু করে এটিঅ্যান্ডটি। অ্যারন পান সেকেন্ডে ৩০০ মেগাবিটের সীমাহীন ইন্টারনেট সংযোগ। এ জন্য মাসে ৪৫ ডলার করে দিচ্ছেন তিনি। আর ১২ মাস পার হলে মাসে দিতে হবে ৬৫ ডলার করে।

প্রযুক্তি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন