আউটসোর্সিংয়ে সার্চইঞ্জিন অপটিমাইজেশনের (এসইও) কাজ বেশ জনপ্রিয়। আগ্রহীদের জন্য ‘এসইও শিখুন’ নামে ধারাবাহিকের আজ ৮ম পর্বে থাকছে কীভাবে ইউআরএলকে সার্চইঞ্জিন র‌্যাঙ্ক করে সে সম্পর্কে আলোচনা।

ওয়েবসাইটের জন্য সার্চইঞ্জিনের র‌্যাঙ্ক অর্জন করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এসইও শিখতে অনেকেরই প্রশ্ন থাকে কীভাবে সার্চইঞ্জিনগুলো URLগুলোকে র‌্যাঙ্ক করে? এর উত্তরে যাওয়ার আগে র‌্যাঙ্কিং বিষয়টি জেনে নিতে হবে। সার্চইঞ্জিনগুলো কীভাবে নিশ্চিত হয় যে, যখন কোনো ইউজার সার্চ বারে কোনো কিছু লিখে সার্চ করে, তখন তারা সঠিক রেজাল্ট পাবে? এই প্রক্রিয়াকে বলা হয় র‍্যাঙ্কিং। যেখানে সার্চ করা তথ্যের সঙ্গে মিল রেখে যে রেজাল্টটি ইউজারের জন্য উপযোগী করে তা দেখানো হয়।
উদাহরণস্বরূপ, গুগল প্রতিদিনই অ্যালগরিদম আপডেট করে থাকে। এর মধ্যে কিছু গুণগত সমন্বয় আবার কিছু কোড/বোর্ড অ্যালগরিদম আপডেট করে থাকে, যা কোনো সুনির্দিষ্ট বিষয়ের ওপর করা হয়।
যেমন: Penguin/পেঙ্গুইন লিংক স্প্যামের জন্য।

কেন অ্যালগরিদম প্রায়ই পরিবর্তন হয়?
গুগলই কি শুধু আমাদের আপডেট রাখার চেষ্টা করে? যেখানে গুগল সব সময় প্রকাশ করে না যে কেন তারা আপডেট করে এবং কী কারণে। আমরা জানতে পারি যখন ‍গুগল তার অ্যালগরিদম আপডেট করার মাধ্যমে সর্বোপরি সার্চ কোয়ালিটির উন্নতি সাধন করে থাকে। আর এই কারণে অ্যালগরিদম আপডেটের প্রতিক্রিয়া হিসেবে প্রশ্ন আসে, যার উত্তর গুগল তার মেসেজের মাধ্যমে প্রদান করে থাকে। যেমন: ‘“আমরা সব সময় কোয়ালিটি আপডেট দিয়ে থাকি।’/‘We’re making quality updates all the time.”’। যা নির্দেশ করে যে যদি আপনার ওয়েবসাইটে বড় কোনো পরিবর্তন দেখা দেয় অ্যালগরিদম আপডেটের পর, তবে পর্যবেক্ষণ করুন ‘গুগল কোয়ালিটি গাইডলাইন’ অথবা ‘সার্চ কোয়ালিটি রেটার গাইডলাইন’গুলোর সঙ্গে, কারণ সেখানে সার্চইঞ্জিন কী চায় তা বলা আছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0