default-image

সারা দেশে কম্পিউটার ও কম্পিউটার যন্ত্রাংশের ওপর ‘এমআরপি নীতিমালা ২০১৮’ এবং ‘ওয়ারেন্টি নীতিমালা ২০১৮’ কার্যকর করার উদ্যোগ নিয়েছে তথ্যপ্রযুক্তি খাতের বাণিজ্য সংগঠন বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতি। এ দুটি নীতিমালা বাস্তবায়নের পাশাপাশি এখন থেকে কোনো মেলা বা প্রদর্শনীতে কম্পিউটার পণ্যে ছাড় ও উপহার দেওয়া হলে তা ওই পণ্যের বেলায় সারা দেশের কম্পিউটার বাজারেও প্রযোজ্য হবে। গতকাল বুধবার রাজধানীর বিসিএস ইনোভেশন সেন্টারে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য তুলে ধরেন বলেন বিসিএসের সভাপতি সুব্রত সরকার।

সুব্রত সরকার বলেন, সর্বোচ্চ খুচরা মূল্য (এমআরপি) নির্ধারিত হওয়ার কারণে ক্রেতাদের প্রতারিত হওয়ার কোনো সুযোগ নেই। কম্পিউটার পণ্যের গায়ে লাগানো এমআরপি স্টিকারে উল্লেখ করা মূল্যে পণ্য কেনার সুযোগ থাকছে ভোক্তাদের।

বিসিএসের এমআরপি নীতিমালায় প্রযুক্তিপণ্যে ছাড় বা উপহার দেওয়ার ক্ষেত্রে কোনো বিধিনিষেধ নেই। মেলা বা প্রদর্শনীতে প্রযুক্তিপণ্যে ছাড় দেওয়া যাবে। তবে এ ছাড় শুধু মেলা প্রাঙ্গণে সীমাবদ্ধ থাকবে না। সুব্রত সরকার বলেন, ‘মেলায় যে ছাড় থাকবে, তা দেশের যেকোনো দোকানে ওই পণ্যের ক্ষেত্রে পাওয়া যাবে। এতে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষিত হবে।’

তথ্যপ্রযুক্তিবিষয়ক লেখক গোলাম নবী প্রথম আলোকে বলেন, ‘এমআরপি ও ওয়ারেন্টি নীতিমালা ভালো উদ্যোগ। তবে এই নীতিমালা ব্যবসায়ীদের জন্য, এখানে ভোক্তা খুব বেশি লাভবান হবে না। কারণ, তারা বলছে, ব্যবসায়ীদের বিভিন্ন অসংগতির কারণে এবং বিচ্ছিন্নভাবে পণ্য বিক্রি করায় এমন নীতিমালা করতে হয়েছে। নীতিমালা তৈরি করার আগে ভোক্তাদের মধ্যে একটি জরিপ নেওয়া যেতে পারত।’

রায়ানস আইটি লিমিটেডের প্রধান কার্যনির্বাহী কর্মকর্তা আহমেদ হাসান প্রথম আলোকে বলেন, ‘এমআরপি ও ওয়ারেন্টির যে নীতিমালা হয়েছে, এটা খুবই ভালো। কারণ, ক্রেতা ও বিক্রেতার যে ভুল-বোঝাবুঝি হতো, সেটা থাকবে না। তা ছাড়া আমি মনে করি, কোনো মেলা হলে ব্র্যান্ড প্রচার করবে এবং ক্রেতাদের সুবিধা দেবে—এটা স্বভাবিক কিন্তু তা সব জায়গায় দেওয়া ভালো।’

এক নজরে

এমআরপি: পণ্যের গায়ে যে দাম থাকবে, তার বেশি দামে বিক্রেতা বিক্রি করতে পারবে না।

ওয়ারেন্টি বা বিক্রয়োত্তর: প্রতিটি পণ্যের সঙ্গে থাকতে হবে ওয়ারেন্টি। কোন পণ্যে কেমন ওয়ারেন্টি থাকবে বা থাকবে না, তার উল্লেখ থাকবে। ক্রেতা সেগুলো জেনে নিয়ে পণ্য কিনবেন।

হেল্পলাইন: কেউ যদি ওয়ারেন্টি বা এমআরপি নীতিমালা না মানে, তাহলে লিখিত অভিযোগ বা হেল্পলাইনে ০১৮৪৭-২৮৯০৯৫ নম্বরে ফোন দিয়ে জানাতে পারবেন। বিসিএসের ওয়েবসাইটে (www.bcs.org.bd) নীতিমালা দুটি পাওয়া যাবে। এ ছাড়া ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরে অভিযোগ করার সুযোগ রয়েছে।

রাহিতুল ইসলাম, ঢাকা

বিজ্ঞাপন
প্রযুক্তি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন