default-image

মোবাইল ডেটিং অ্যাপ্লিকেশন টিন্ডার ও বাম্বলকে টেক্কা দিতে ফেসবুক গতকাল বৃহস্পতিবার নতুন ডেটিংসেবা চালু করেছে। কলম্বিয়ায় পরীক্ষামূলকভাবে চালু করা ওই ডেটিং অ্যাপ্লিকেশনের মাধ্যমে ঘটকের ভূমিকা নিতে চায় সামাজিক যোগাযোগের এ মাধ্যমটি।

প্রযুক্তিবিষয়ক ওয়েবসাইট দ্য ভার্জ জানিয়েছে, প্রথম দর্শনে ‘ফেসবুক ডেটিং’সেবাটি তাদের প্রতিদ্বন্দ্বী ‘হিঞ্জের’ মতো। টিন্ডারের জনপ্রিয় সোয়াইপ মডেল অনুসরণ করা হচ্ছে এতে। ব্যবহারকারীকে তাঁর প্রোফাইলে থাকা কোনো কিছু ধরে বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দিতে বলা হয় এবং আলাপ জমানো হয়।

ফেসবুক ডেটিংসেবায় বিভিন্ন গ্রুপ ও ইভেন্ট যুক্ত করা হয়েছে। এতে ব্যবহারকারীকে গ্রুপভিত্তিক আলাপের সুবিধাও দেওয়া হচ্ছে।

ফেসবুকের পণ্য ব্যবস্থাপক নাথান শার্প বলেছেন, ‘অনেক দিন ধরেই ফেসবুকে ডেটিং বা প্রণয়–সম্পর্কিত বিষয়গুলো আমরা লক্ষ করছিলাম। যাঁরা প্রেম করতে চান, তাঁদের জন্য বিষয়টিকে আরও সহজ ও স্বস্তিকর করতে চাই আমরা। এখনই এটা করার উপযুক্ত সময়।’

ফেসবুক ডেটিংসেবাটি ফেসবুকের মোবাইল অ্যাপের ভেতরেই পাওয়া যাবে। তবে এখনই ডেস্কটপ সংস্করণে আসবে না। শুরুতে ১৮ বছরের বেশি বয়সীরা এটা ব্যবহার করতে পারবেন। এই সেবা ব্যবহার করতে অর্থ লাগবে না। এতে কোনো বিজ্ঞাপন দেখানো হবে না এবং এর কোনো প্রিমিয়াম ফিচার থাকবে না।

গত আগস্ট মাস থেকে অ্যাপটি অভ্যন্তরীণভাবে পরীক্ষা করা শুরু করে ফেসবুক। শুরুতে ভুয়া তথ্য ব্যবহার করে এর কর্মীরা ডেটিং প্রোফাইল তৈরি করেন। এটি সবার জন্য উন্মুক্ত করার আগে ওই ভুয়া অ্যাকাউন্টগুলো মুছে ফেলার কথা বলেছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ।

এ বছরের মে মাসে ক্যালিফোর্নিয়ায় ফেসবুকের বার্ষিক ডেভেলপার সম্মেলন এফ ৮-এ ডেটিং অ্যাপ চালু করার ঘোষণা দিয়েছিলেন ফেসবুকের প্রধান নির্বাহী মার্ক জাকারবার্গ।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0