default-image

কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাযুক্ত শিক্ষামূলক অ্যাপ ‘বইঘর’ উদ্বোধন করেছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। আজ রোববার এক ভার্চ্যুয়াল অনুষ্ঠানে স্টার্টআপ প্রতিষ্ঠান বইঘরের উদ্যোগে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বইঘর শিক্ষা সহজীকরণ অ্যাপের নতুন সংস্করণ (৬.০) উদ্বোধন করেন তিনি।

অ্যাপটিতে রয়েছে দ্বিতীয় থেকে সপ্তম শ্রেণি পর্যন্ত সব শিক্ষার্থীর জন্য অধ্যায়ভিত্তিক পরীক্ষা দেওয়ার সুযোগ। ডিজিটাল লাইব্রেরির গ্রাহক হয়ে বই পড়ার সুযোগ।

পাঠ্যবইয়ের পাশাপাশি অন্যান্য বই এবং টেক্সট টু স্পিচ প্রযুক্তির মাধ্যমে বই পড়ে শোনানোর ব্যবস্থা। অ্যাপটি থেকে পরীক্ষায় অংশ নিলে কিছু সময়ের শিশুতোষ গেম খেলার সুযোগ মেলে।

ই-কমার্স থেকে বিভিন্ন বুদ্ধিবৃত্তিক খেলনাসহ ডিজিটাল ক্লাসরুমের সামগ্রী কেনার ব্যবস্থা আছে। অভিভাবকদের জন্য আছে শিক্ষার্থীর অগ্রগতি দেখার সুবিধা ও অন ডিমান্ড প্রিন্ট।

বিজ্ঞাপন

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মোস্তাফা জব্বার বলেন, দেশ ডিজিটাল হয়েছে। ইন্টারনেটের ব্যবহার বেড়েছে। করোনা মহামারির সময়ে ভার্চ্যুয়াল পড়াশোনায় যুক্ত হয়েছে শিক্ষার্থীরা। এ ধরনের কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাযুক্ত পড়াশোনার অ্যাপ শিক্ষার্থীদের কাজে লাগবে।

অনুষ্ঠানে বইঘরের সহপ্রতিষ্ঠাতা মোহাম্মদ মাহদী উজ জামান অ্যাপটি সম্পর্কে বলেন, বইঘর স্টার্টআপ হিসেবে ডিজিটাল শিক্ষাকে সহজ করেছে। তাদের তৈরি নতুন অ্যাপে শিক্ষার্থীদের জন্য সহজে পরীক্ষা দেওয়ার ব্যবস্থা ছাড়াও কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার সাহায্যে বিষয়ভিত্তিক বা অধ্যায়ভিত্তিক সমস্যা সমাধান, অনলাইনে বই পড়ার সুবিধার মতো নানা ফিচার যুক্ত হয়েছে। শিক্ষার্থীদের অনলাইনভিত্তিক আনন্দময় শিক্ষা দেওয়ার ব্যবস্থার পাশাপাশি সহযোগী হিসেবে অনলাইন শিক্ষকের ব্যবস্থাও আনা হয়েছে। এতে ডিজিটাল ক্লাসরুমের সুবিধাও আছে। শিক্ষার্থীদের জন্য পরিপূর্ণ সমাধান হিসেবে অ্যাপটি কাজে লাগতে পারে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইনভেস্টমেন্ট করপোরেশন অব বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালন মো. আবুল হোসেন, প্রথম আলোর যুব কার্যক্রমের প্রধান মুনির হাসান, বেসিস প্রেসিডেন্ট সৈয়দ আলমাস কবীর, বেসিসের সহ–সভাপতি শোয়েব আহমেদ, বিসিএস প্রেসিডেন্ট শহীদ উল মুনির, পাখি ও বন্য প্রাণী বিশেষজ্ঞ আ ন ম আমিনুর রহমান, বইঘরের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ হাসান উজ জামান, পরিচালক মুনির আহমেদ প্রমুখ।

মন্তব্য পড়ুন 0