মার্তিনাস গারুলিস থামতেই পারছেন না। একবার প্লেট থেকে কাঁটা চামচ দিয়ে আলু তুলে নিচ্ছেন, তো আরেকবার নিজের জন্য গ্লাসে পানি ঢালছেন। পান করছেন, তারপর আবার গ্লাসটা আগের জায়গায় নিয়ে রাখছেন। এসব কাজ করতে পারাটা তাঁর জন্য নতুন। লিথুয়ানিয়ার ২১ বছর বয়সী এই তরুণ স্নায়ু ও পেশির জটিল রোগ নিয়ে জন্ম নিয়েছেন। হাত নাড়ানোর সামর্থ্য তাঁর ছিল না। কিন্তু গত বছর একটি কৃত্রিম হাত সংযুক্ত করা হয়েছে তাঁর শরীরে। মস্তিষ্কের সাহায্যে হাতটি নিয়ন্ত্রণ করতে হয়। এখন বদলে গেছে তাঁর জীবন। নিত্যদিনের কিছু কাজকর্ম কারও সাহায্য ছাড়াই করে নিতে পারছেন। তাঁর অস্ত্রোপচার করেছেন অস্ট্রিয়ার ভিয়েনা মেডিকেল ইউনিভার্সিটির শল্যচিকিৎসক অস্কার আজমান। তিনি বলেন, জন্মগতভাবে ত্রুটিপূর্ণ কারও শরীরে কৃত্রিম হাত সংযোজনে সাফল্যের এটিই প্রথম দৃষ্টান্ত। এএফপি।

বিজ্ঞাপন
প্রযুক্তি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন