default-image

যুক্তরাজ্যের নাগরিকরা যতটা না মূলধারার সংবাদপত্রের খবরে বিশ্বাস করেন তার চেয়েও বেশি বিশ্বাস করেন উইকিপিডিয়ার তথ্যে। সম্প্রতি লন্ডনে অনুষ্ঠিত উইকিমিডিয়া ফাউন্ডেশনের তিন দিনের অনুষ্ঠানে সমাপনী অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন উইকিপিডিয়ার প্রতিষ্ঠাতা জিমি ওয়েলস। এএফপির এক খবরে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

দুই হাজার ব্রিটিশ নাগরিকের ওপর ইন্টারনেটভিত্তিক বাজার গবেষণা প্রতিষ্ঠান ইউগভের এক জরিপে দেখা গেছে ৬৪ শতাংশ মানুষ উইকিতথ্যে আস্থা রাখেন। সেই তুলনায় সংবাদমাধ্যম বিবিসির বিশ্বাসযোগ্যতা ৬১ শতাংশ, টাইমস ও গার্ডিয়ানের ৪৫ শতাংশ আর দ্য সানের মতো ট্যাবলয়েডের বিশ্বাসযোগ্যতা মাত্র ১৩ শতাংশ।

জিমি ওয়েলস বলেন, ‘ব্রিটিশরা খবরের চেয়ে উইকিপিডিয়াতে বেশি বিশ্বাস করেন। সবচেয়ে খুশির খবর হল বিবিসির তুলনায় এগিয়ে আছে উইকিপিডিয়া। তিনি বলেন, ‘যতদিন না উইকিপিডিয়া মানুষের আস্থার দিক থেকে এনসাইক্লোপিডিয়া ব্রিটানিকাকে অতিক্রম করছে ততদিন থামছি না।’ ইউগভের জরিপে দেখা গেছে ৮৩ শতাংশ ব্রিটিশরা এনসাইক্লোপিডিয়া ব্রিটানিকার তথ্যে বিশ্বাস করে।

অনলাইন এনসাইক্লোপিডিয়া হিসেবে উইকিপিডিয়া মূলত প্রদায়কদের দেওয়া তথ্যের ওপর নির্ভরশীল। এখানে সঠিক তথ্য দেওয়ার জন্য সম্পাদনা করার সুযোগ রয়েছে।

বিজ্ঞাপন
প্রযুক্তি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন