default-image

গুগল ও ফেসবুকের মতো প্ল্যাটফর্মে পুরো খবর বা খবরের অংশবিশেষ প্রকাশের জন্য সংবাদ প্রকাশকদের অর্থ প্রদানের আইন প্রস্তাব করেছে অস্ট্রেলিয়া সরকার। এরপর গুগল জানিয়েছে, প্রয়োজনে অস্ট্রেলিয়া ছাড়বে তারা, তবু অস্ট্রেলিয়ার প্রস্তাবিত আইন মেনে নেবে না। সে ঘটনার পর মাইক্রোসফটের সঙ্গে অস্ট্রেলিয়া আলোচনা শুরু করে বলে বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

আজ সোমবার দেশটির প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন বলেছেন, অস্ট্রেলিয়া থেকে গুগল যদি ব্যবসা গুটিয়ে নেয়, তবে সে জায়গা পূরণের ব্যাপারে পূর্ণ আত্মবিশ্বাসী মাইক্রোসফটের তথ্য খোঁজার সেবা বিং।

কী আছে অস্ট্রেলিয়ার প্রস্তাবিত আইনে

অস্ট্রেলিয়া সরকারের প্রস্তাবিত আইন অনুযায়ী সংবাদ প্রকাশকদের সঙ্গে বাণিজ্যিক চুক্তি থাকতে হবে গুগল কিংবা ফেসবুকের মতো তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলোর। সংবাদের অংশবিশেষ প্রকাশের জন্য গণমাধ্যম প্রতিষ্ঠানগুলোকে অর্থ পরিশোধের কথা বলা হয়েছে। তবে অর্থের পরিমাণ ঠিক হবে দুই পক্ষের চুক্তি অনুযায়ী। আর কোনো চুক্তিতে পৌঁছানো সম্ভব না হলে মধ্যস্থতা করে দেবেন আদালত।

এদিকে বড় প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলোর ভাষ্য হলো, প্রস্তাবিত আইনটির অধীনে কাজ করা তাদের পক্ষে সম্ভব নয়। এরপর অস্ট্রেলিয়া থেকে ব্যবসা গুটিয়ে নেওয়ার হুমকি দিয়েছে গুগল। আর ফেসবুক বলেছে, প্রয়োজনে তারা অস্ট্রেলীয় ব্যবহারকারীদের নিউজফিডে সংবাদ পরিবেশন বন্ধ করে দেবে।

বিজ্ঞাপন

গুগলের জায়গায় মাইক্রোসফট কেন

সে থেকে অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসনের সঙ্গে প্রস্তাবিত আইনটি নিয়ে আলোচনা চালিয়েছেন মাইক্রোসফটের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সত্য নাদেলা। স্কট মরিসন এবং মাইক্রোসফটের এক মুখপাত্র তা নিশ্চিতও করেছেন। অস্ট্রেলিয়ার ক্যানবেরায় প্রতিবেদকদের মরিসন বলেছেন, ‘আমি আপনাদের বলতে পারি, সত্যর সঙ্গে কথা বলে বুঝেছি মাইক্রোসফট বেশ আত্মবিশ্বাসী।’ তবে আর কী কী নিয়ে কথা হয়েছে, বা আলোচনা কত দূর গড়িয়েছে, তা বিস্তারিত জানাননি তিনি।

default-image

এক দিন আগেই অস্ট্রেলিয়ার ট্রেজারার জশ ফ্রাইডেনবার্গ জানিয়েছেন, ফেসবুকের প্রধান নির্বাহী মার্ক জাকারবার্গের সঙ্গে তাঁর কথা হয়েছে। সঙ্গে বলেছেন, প্রস্তাবিত আইনটি নিয়ে বৈঠকের অনুরোধ জানিয়েছেন মার্ক। তবে আইনটি পাস করার ব্যাপারে একটুও পিছপা হবেন না বলেও উল্লেখ করেছেন ফ্রাইডেনবার্গ।

অস্ট্রেলিয়ায় ওয়েব সার্চ ব্যবহারকারীদের ৯৪ শতাংশের বেশি ব্যবহার করেন গুগল। বিস্তর ব্যবধানে দ্বিতীয় স্থানে আছে মাইক্রোসফটের বিং। এখন গুগল যদি অস্ট্রেলিয়ায় সেবা দেওয়া বন্ধ করে দেয়, তবে বিকল্প হিসেবে বিং বেছে নেওয়ার কথা ভাবছে অস্ট্রেলিয়ার সরকার। তবে সে জন্য আগে ওয়েব সার্চ ব্যবহারকারীদের আস্থাভাজন হতে হবে মাইক্রোসফটকে।

প্রযুক্তি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন