default-image

আন্তর্জাতিক কোনো জোটের সঙ্গে যুক্ত না থাকায় কলসেন্টার ও বিপিও খাতে কাজ পেতে বেগ পেতে হতো বাংলাদেশের কলসেন্টার ও আইসিটি খাতের প্রতিষ্ঠানগুলোকে। এবারে বিশ্বের প্রথম ও সর্ববৃহৎ কলসেন্টার জোট গ্লোবাল বিপিও কল সেন্টার অ্যালায়েন্সে যুক্ত হয়েছে বাংলাদেশি কলসেন্টার সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান ফিফোটেক।

গতকাল বৃহস্পতিবার ঢাকায় এক ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানে জিবিএর সদস্য হওয়ার ঘোষণা দেয় ফিফোটেক। অনুষ্ঠানে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেন, গ্লোবাল বিপিও অ্যালায়েন্সের সঙ্গে যুক্ত হওয়ায় বাংলা ভাষাভাষী প্রায় ৩৫ কোটি মানুষের জন্য বিপিও সেবা দেওয়ার সুযোগ পাওয়া যাবে। এতে বাংলাদেশের বিপিও খাত আরও সমৃদ্ধ হবে।

বিজ্ঞাপন

বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে কল সেন্টার ও বিজনেস প্রসেস আউটসোর্সং (বিপিও) খাতের গ্রাহকদের কেন্দ্রীয় ভাবে নিরবচ্ছিন্ন সেবা দেয় জিবিএ জোট। এর সঙ্গে যুক্ত হওয়ায় ফিফোটেক বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের বাংলাভাষী গ্রাহকদের সেবা দিতে পারবে।

বাংলাদেশ থেকে বাংলা ও হিন্দি ভাষার গ্রাহকদের ভারতের কলকাতা থেকে কলসেন্টার ও ব্যাক অফিস সেবা দেওয়ার সুযোগ হবে। জিবিএর সদস্য কোম্পানিগুলো ২৮টি ভাষায় পৃথিবীর নানা প্রান্তে কল সেন্টার ও ব্যাক অফিসের সার্ভিসের মাধ্যমে গ্রাহকদের সেবা দেয়। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যোগাযোগ করে তাদের চাহিদা ও ভাষা অনুযায়ী সদস্য কোম্পানিগুলোকে কাজের ব্যবস্থা করে দেয় জিবিএ কর্তৃপক্ষ। এ জোটের প্রতিনিধিত্বকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর মাধ্যমে পৃথিবীর যেকোনো দেশে বসে বিপিও ও কলসেন্টারের সেবা নিতে পারবেন গ্রাহকেরা।

বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব কল সেন্টার অ্যান্ড আউটসোর্সিং (বাক্কো) এর সভাপতি ওয়াহিদ শরীফ বলেন, বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠান ফিফোটেক আন্তর্জাতিক কল সেন্টার জোট-জিবিএর সঙ্গে কাজ করবে যাদেশের জন্য গর্বের বিষয়।

ফিফোটেকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা তৌহিদ হোসেন বলেন, বিভিন্ন প্রান্তের বাংলা ভাষার গ্রাহকদের বাংলাদেশ থেকে ও হিন্দি ভাষার গ্রাহকদের ভারতের কলকাতা থেকে কলসেন্টার ও ব্যাক অফিস সেবা দেওয়ার সুযোগ তৈরি হচ্ছে।

ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন তথ্যপ্রযুক্তি এবং বিপিও খাতের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তারা।

মন্তব্য পড়ুন 0