বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

নিয়োগের জন্য যোগ্য প্রার্থীর সংকটে কেবল ফেসবুক নয়। পুরো প্রযুক্তি খাতেই এ দশা, বিশেষ করে প্রকৌশলী ও সফটওয়্যার ডেভেলপার নিয়োগ নিয়ে বেশি দুশ্চিন্তায় থাকে প্রতিষ্ঠানগুলো।

২০২০ সালের শেষ ও ২০২১ সালের শুরুতে, বিশেষ করে বে এরিয়াতে ‘আইসি৫’ পর্যায়ের (জ্যেষ্ঠ পর্যায়ের বলা যেতে পারে) প্রকৌশল বিভাগের জন্য কর্মী নিয়োগে বেশি সমস্যার মুখে পড়েছে ফেসবুক। ওই পদের জন্য ২০২১ সালের প্রথম প্রান্তিকে ৩২০ জন কর্মী নিয়োগের কথা বলা হলেও ১৭১ জন শেষমেশ যোগ দিয়েছেন।

ওই নথিতে আরও বলা হয়, ২০২০ সালের করোনাকালীন অনিশ্চয়তায় অন্যান্য প্রতিষ্ঠান থেকে কর্মীরা ফেসবুকে যোগ দেন। তবে সে প্রতিষ্ঠানগুলো এখন বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে নতুন করে অর্থ পাওয়ায় অতিমারি-পূর্ব অবস্থায় ফিরে গেছে।

নথির এক জায়গায় লেখা ছিল, ‘নিয়োগের লক্ষ্যমাত্রা পূরণ না হওয়ায় আমরা যা যা তৈরি করার পরিকল্পনা করেছিলাম, তার সব করতে পারছি না কিংবা বেশ ধীরগতিতে এগোচ্ছে। প্রকৌশলী নিয়োগের লক্ষ্যমাত্রা পূরণ না হওয়া সবচেয়ে বড় সমস্যা ছিল এবং মার্ক পরিষ্কার করে বলেছেন, তিনি ২০২০ সালের পুনরাবৃত্তি চান না।’

কিছুদিন আগে ইউরোপে ১০ হাজার কর্মী নিয়োগের ঘোষণা দিয়েছে ফেসবুক। সেই কর্মীদের কাজের মধ্যে থাকবে ‘মেটাভার্স’ নামের ভার্চ্যুয়াল জগৎ তৈরি, যাকে ফেসবুকের ভবিষ্যৎ বলছেন মার্ক জাকারবার্গ। আজ প্রকল্পটি নিয়ে বড় ঘোষণা আসার কথা রয়েছে। তবে যুক্তরাজ্যের সংসদে চলতি সপ্তাহের শুরুতে শুনানিতে অংশ নিয়ে ফ্রান্সেস হাউগেন বলেন, সে সংবাদ শুনে তিনি ব্যথিত হয়েছেন। বলেন, ‘আপনি কি জানেন, ১০ হাজার প্রকৌশলী বেশি পেলে আমরা ব্যবহারকারীর তথ্যের সুরক্ষা নিয়ে আরও কত কী করতে পারতাম? ব্যাপারটা চমৎকার হতো।’

চলতি বছরের ৩১ মার্চ পর্যন্ত বিশ্বব্যাপী ফেসবুকের কর্মিসংখ্যা ৬০ হাজার ৬৫৪।

প্রযুক্তি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন