default-image

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভিডিও শেয়ারিং অ্যাপ টিকটকের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়েছে পাকিস্তান। অনৈতিক কোনো কনটেন্ট আপলোড করা হবে এ মর্মে পাকিস্তানের পেশোয়ার হাইকোর্ট গত বৃহস্পতিবার এ নিষেধাজ্ঞা তুলে নেন। অনৈতিক কনটেন্টের ব্যাপারে দেখভাল করবে পাকিস্তান টেলিযোগাযোগ কর্তৃপক্ষ (পিটিএ)। আর এ–সংক্রান্ত প্রতিবেদন ২৫ মে আদালতে দাখিল করা হবে।

ডনের খবরে বলা হয়েছে, টিকটকের নিষেধাজ্ঞা তোলা খবরের প্রতিক্রিয়ায় দেশটির বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিমন্ত্রী ফাওয়াদ চৌধুরী সতর্ক করে এক টুইট করেছেন। টুইটে তিনি বলেছেন, এর আগের নিষেধাজ্ঞা বাতিল করেছেন পেশোয়ারের হাইকোর্ট। এরপর ভবিষ্যতে এমন বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে খুব সতর্কতার সঙ্গে, যাতে পাকিস্তানের ভবিষ্যৎ অর্থনীতি ক্ষতিগ্রস্ত না হয়।

এর আগে ভিডিও শেয়ারিংয়ের অ্যাপে টিকটকে অশালীনতা ছড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে—এমন অভিযোগে গত ১১ মার্চ পিটিএ টিকটক বন্ধ করে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিলেন পেশোয়ার হাইকোর্ট। টিকটকের বিরুদ্ধে এক আবেদনের জবাবে ওই সময় এমন সিদ্ধান্ত দিয়েছিলেন ওই হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি কায়সার রশিদ খান। শুনানিতে প্রধান বিচারপতি বলেছিলেন, টিকটকে যেসব ভিডিও শেয়ার দেওয়া হয়, তা পাকিস্তানের সমাজের জন্য গ্রহণযোগ্য নয়। এতে যুবসমাজ মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। এসব ভিডিও অশ্লীলতা ছড়িয়ে দিচ্ছে। তাই অবিলম্বে এটা বন্ধ করা উচিত।

বিজ্ঞাপন
প্রযুক্তি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন