default-image

দেশে আগামী ডিসেম্বরে তরুণদের জন্য ইনোভেশন হ্যাকাথন অনুষ্ঠিত হবে । তথ্যপ্রযুক্তি খাতের দরকারি চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় কয়েকটি গ্রুপে ভাগ হয়ে তরুণেরা উদ্ভাবনী প্রতিযোগিতায় অংশ নেবেন। সম্প্রতি সিটিও ফোরাম আয়োজিত এ ভার্চুয়াল সম্মেলনে এ তথ্য জানানো হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার তরুণদের উদ্ভাবনী দক্ষতার ওপর গুরুত্ব দেওয়ার আহ্বান জানান।

দেশের প্রযুক্তি খাতের প্রধান কারিগরি কর্মকর্তাদের সংগঠন সিটিও ফোরাম বাংলাদেশ এবং মোবাইল অপারেটরদের সংগঠন অ্যামটবের যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত ‘রোল অব টেলিকম ইন অ্যাকসেলেরাটিং ডিজিটাল বাংলাদেশ’ শীর্ষক ভার্চ্যুয়াল সভা অনুষ্ঠিত হয়।

বিজ্ঞাপন

দেশের উন্নয়নে মেধাবী তরুণদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়ে মোস্তাফা জব্বার বলেন, তরুণদের উদ্ভাবন সম্পদকে সুরক্ষা দেওয়ার মাধ্যমে দেশি উদ্ভাবনকে আন্তর্জাতিক বাজারে নিয়ে যেতে হবে।

অনুষ্ঠানে সিটিও ফোরামের সভাপতি তপন কান্তি সরকার বলেন, ফাইভ-জির মাধ্যমে চতুর্থ শিল্পবিপ্লবে রূপান্তর করবে। এ রূপান্তরের জন্য তরুণদের তৈরি করতে হবে। আমাজন ও সিটিও ফোরামের উদ্যোগে আয়োজিত ‘সিটিও ইনোভেশন ফোরাম’ গঠনের ঘোষণা দেন তিনি। ১৬ ডিসেম্বর বিজয় দিবসে তরুণদের নিয়ে ইনোভেশন হ্যাকাথন আয়োজনের কথাও জানান।

অ্যামটব সভাপতি ও রবি আজিয়াটা লিমিটেডের প্রধান নির্বাহী মাহতাব উদ্দিন আহমেদ বলেন, সরকারের প্রচেষ্টার পাশাপাশি সব সরকারি দপ্তর ও প্রতিষ্ঠানকে একই নীতিতে এগিয়ে আসতে হবে।

ডিজিটাল ফিন্যান্সিয়াল সেবায় বিটিআরসির হস্তক্ষেপে ব্যাংক এবং টেলিকম উভয় পক্ষ এখন ‘বিজয়ী’ অবস্থানে আছে বলে মন্তব্য করেন গ্রামীণফোনের প্রধান নির্বাহী ইয়াসির আজমান। অনুষ্ঠানে টেলিকম খাতকে ‘ডিজিটাল ব্যাংকিংয়ের ব্যাকবোন’ বলে মন্তব্য করেন ডাচ্‌-বাংলা ব্যাংক লিমিটেডের প্রধান নির্বাহী আবুল কাশেম মো. শিরিন। বাংলালিংকের প্রধান নির্বাহী এরিক অস বলেন, প্রতিটি বাড়িকে ইন্টারনেটের অধীনে আনতে টেলিকম অপারেটরগুলো কাজ করছে।

মন্তব্য করুন